east bengal footballer

কলকাতা: তিনি বুড়ো হয়ে গেছেন। তবু তাঁকে নিয়ে রোমাঞ্চকর টানাটানি চলছে কলকাতার তিন ক্লাবে। কারণ মাঝমাঠে তাঁর নেতৃত্ব দেওয়ার ক্ষমতা। ওয়াটসনকে রাখবে না মোহনবাগান। তাঁদের দরকার একজন অ্যাটাকিং মিডিও। তাই মাহমুদ আল আমনাকে প্রস্তাব দেয় গঙ্গাপারের ক্লাব।

অন্যদিকে আমনাকে চেয়েছে এটিকে-ও। কেউ কেউ বলছেন, তাঁদের সঙ্গে নাকি আমনার পাকা কথাও হয়ে গেছে। যদিও এ খবরের সত্যতা যাচাই করা যায়নি। কি্ন্তু সব মিলিয়ে যেটা হয়েছে, তাতে দলবদলের বাজারে আমনার দর অনেকটাই বেড়ে গেছে। যেটা মেটানো ইস্টবেঙ্গলের পক্ষে মুশকিল। যদিও সোমবারের বৈঠকে আমনাকে কিছুটা বেশি টাকার প্রস্তাব দেওয়া হয়। কিন্তু আমনা তাতে এখনও সম্মতি দেননি। ইস্টবেঙ্গল কর্তারা অবশ্য বুক বাজিয়ে বলছেন, আমনা থাকছেনই। তাঁদের পক্ষে একটাই বিষয় রয়েছে। খালিদ জামিল। খালিদ যে আগামী মরশুমে ইস্টবেঙ্গলেই থাকছেন, সেটা প্রায় নিশ্চিত। অনেকেই ধরে নিচ্ছেন খালিদ থাকলে আমনা থাকবেন। কারণ, দুজনের রসায়ন বেশ ভালো। তবে অনিশ্চয়তা এখনও পুরোমাত্রায় বহাল।

এই পরিস্থিতিতে এখন আমনার বিকল্পের খোঁজ চালাচ্ছে লালহলুদ। এমনিতেই বিদেশি স্ট্রাইকারের জন্য ক্লাবে এখন একগাদা বায়োডাটা এসে পড়ে রয়েছে। ধীরেসুস্থে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে চান কর্তারা। এর মধ্যে আমনার বিকল্প খোঁজার কাজটাও চালিয়ে যেতে হচ্ছে। যতদূর জানা গেছে, আমনার জায়গায় এই মুহূর্তে সবচেয়ে বেশি চর্চা চলছে ২৬ বছর বয়সি এক অ্যাটাকিং মিডিও-কে নিয়ে। আলবানিয়ার এই ফুটবলারের নাম লিরিডন ক্রাসনিকি। খেলেন মালয়েশিয়ার কেদাহ ক্লাবে। মালয়েশিয়ান প্রিমিয়ার লিগ থেকে খেলা শুরু করলেও, তাঁর পারফরম্যান্সের জেরে সুপার লিগে জায়গা করে নেন তিনি। গোলের পাস বাড়ানোয় সিদ্ধহস্ত লিরিডনের নিজে গোল করার সুঅভ্যাসও আছে। তবে ইস্টবেঙ্গলের অর্থসংকট থাকায়, বিদেশিদের ব্যাপারে অনেকদিক দেখেই সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে ক্লাবকে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন