eastbengalleague-2018who-will-be-i-league-2018-champion-here-is-the-equation

ওয়েবডেস্ক: আইএসএল-এর ‘এক শহর এক ক্লাব’ নীতিকে সমস্যার মধ্যে ফেলল না ফিফা। আইএসএল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে ক্লাবগুলির এই চুক্তি রয়েছে পাঁচ বছরের জন্য। যা শেষ হবে ২০১৮-১৯ মরশুমে। সারা দেশ জুড়ে একটাই টপ ডিভিশন লিগ করার যে ডেডলাইন ফিফা পাঠিয়েছে, তাতে বলা হয়েছে ২০১৯-২০ থেকে তা শুরু করতেই হবে, না হলে দেশের সব ক্লাবকে নিষিদ্ধ করা হবে। অর্থাৎ আগামী মরশুমেও দুটি লিগ না মেলানোর সুযোগ পেয়ে গেল ফেডারেশন।

সেই মতো আগামী মরশুমের ফুটবল ক্যালেন্ডার সাজাচ্ছে এআইএফএফ। তাতে ঠিক হয়েছে গতবারের মতো এবারও আই লিগ এবং আইএসএল এক সঙ্গে চলবে। পাশাপাশি সুপার কাপও দুই লিগের মাছেই সারতে চায় ফেডারেশন। সেক্ষেত্রে এ বছরের ফরম্যাটে কিছু বদল আনতে হবে। তা নিয়েই আপাতত ভাবনাচিন্তা চলছে ফেডারেশনের অন্দরে। তবে সুপার কাপ হবে নক আউট-ই।

দেশে একটাই লিগ করার ব্যাপারে ফিফা, এএফসি-র মাধ্যমে যে নির্দেশিকা পাঠিয়েছে, তাতে বলা হয়েছে- টপ ডিভিশন লিগে ‘এক শহর এক ক্লাব’ নীতি থাকবে না। লিগে খেলার জন্য কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি ফি-ও দিতে হবে না। দুটোই কলকাতার দুই প্রধানের কাছে স্বস্তির খবর। পাশাপাশি সেই লিগে ওঠানামা থাকবে যে কোনো লিগের মতোই। ২০২২ সালের মধ্যে অন্তত ১৬-১৮টি দল নিয়ে টপ ডিভিশন লিগ করার নির্দেশ দিয়েছে ফিফা।

অন্যদিকে, তাঁদের অবনমনে না পাঠানোর ফেডারেশনের কাছে আবেদন করেছিল চার্চিল ব্রাদার্স। কিন্তু ফেডারেশন তাতে রাজি হয়নি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন