dropkickfinal

ওয়েবডেস্ক: ফুটবল বডি কন্টাক্ট খেলা। খেলোয়াড়দের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি, ঠেলে ফেলা নতুন কিছু নয়। ফুটবলে এমন জিনিসের উপস্থিতি আছে বলেই এই খেলাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা, উদ্দীপনার মাত্রা বাকিদের থেকে অনেকটা এগিয়ে। ফুটবলাররা যখন মাঠে দলের জার্সিতে নিজেদের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করেন তখন মানসিক চাপ থাকাটাই স্বাভাবিক। কিন্তু সেই চাপ দলের পক্ষে যাতে ক্ষতি ডেকে না আনে তা কিন্তু খোদ ফুটবলারদেরই মাথায় রাখতে হয়। কিন্তু অনেক সময় তা হয়ে ওঠে না। মাথা গরম করে ফেলেন খেলোয়াড়রা। কিন্তু তাই বলে বিপক্ষ দলের ফুটবলারকে ‘ডব্লিউ-ডব্লিউ-ই’ স্টাইলে ‘ড্রপ-কিক’। বিশ্বাস নিশ্চয়ই করতে পারছেন না কিন্তু এমনটাই ঘটেছে।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ কোয়ালিফায়ার ম্যাচে ঘরের মাঠে লাক্সাম্বার্গের এফ ৯১ ডুডেলেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছিল হাঙ্গেরির ভিডিওটন। ম্যাচে এগিয়ে ছিল হোম টিম। তবে খেলার একদম শেষ মিনিটে এই ঘটনার সূত্রপাত। যখন ভিডিওটনের গোলকিপার দলের খেলোয়াড়দের উদ্দেশে বল দেয় বিপক্ষ অঞ্চলে। সেই বল থেকে বিপদের আশঙ্কা দেখে ক্লিয়ার করতে যান ডুডেলেঞ্জের ডিফেন্ডার ব্রায়ান মেলিস। সেই বল ক্লিয়ার করেও দেন তিনি। কিন্তু তার পরে সামনে থাকা বিপক্ষ খেলোয়াড় মাতে পাতকাইয়ের ‘মিড সেক্টান বা কোমরের নীচে’ কিছুটা ইচ্ছাকৃত ভাবে ‘ড্রপ-কিক’ মেরে বসেন তিনি। যা রীতিমতো ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। ফলে এমন ঘটনা রেফারির দৃষ্টিপাত করতে ভুল করেনি। লাল কার্ড দেখিয়ে তাঁকে মাঠ থেকে বার করে দেওয়া হয়।

২-১ ব্যবধানেই জয় পায় ভিডিওটন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here