২ গোলে পিছিয়ে পড়েও ইপিএলে দুর্দান্ত কামব্যাক চেলসির

0
365
giroud-goal

সাউথহাম্পটন ২               চেলসি – ৩

ওয়েবডেস্ক: দুরন্ত জয় চেলসির। শনিবার ইপিএলে অ্যাওয়ে ম্যাচে পিছিয়ে পড়েও, নয়’ মিনিটে তিন গোল চেলসির। ঘরের মাঠে প্রথম থেকেই আক্রমণ করতে থাকে সাউথহাম্পটন। তবে তার রেশ কাটিয়ে প্রতি আক্রমণে ফেরার চেষ্টা করে চেলসিও। হাজার্ডের শট বিপক্ষ ডিফেন্ডারের গায়ে লেগে প্রতিহত হয়। তবে বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি হোম টিমকে। ২১ মিনিটে তাদিচের গোলে এগিয়ে যায় সাউথহাম্পটন। তবে এই গোলের পিছনে অবদান ওপর খেলোয়াড় বারটট্রান্ডের। উইং থেকে অবিশ্বাস্য দৌড়ে চেলসি ডিফেন্সকে ফাটল ধরান তিনি। গোল পেয়ে আক্রমণ বাড়াতে থাকে তারা। পিছিয়ে থাকেনি চেলসিও। তবে প্রথমার্ধে ব্যবধান বাড়েনি।

দ্বিতীয়ার্ধে শুরু থেকেই আক্রমণ শানাতে থাকে দু’দল। লংয়ের নেওয়া শট বাঁচান চেলসি গোলকিপার করটুইস। ওপরদিকে হাজার্ডের শট বাঁচান সাউথহাম্পটন গোলকিপার, ম্যাককারথি। তবে বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি সাউথহাম্পটনকে। পনেরো মিনিটের মধ্যে ব্যবধান বাড়ায় তারা। সৌজন্যে বেডনারেক। দলের হয়ে প্রথম গোল করলেন তিনি। তবে নাটক এখনও বাকি ছিল। পিছিয়ে পড়ে আক্রমণে ঝাঁজ বাড়ানোর লক্ষ্যে, পরিবর্ত হিসাবে জিরু, পেদ্রকে নামান চেলসি কোচ কন্তে। যার ফলও পেয়ে যায় তারা কিছুক্ষণের মধ্যে। হেডে গোল করে চেলসির হয়ে ব্যবধান কমান জিরু। যার রেশ কাটতে না কাটতেই ফের গোল। ম্যাচে সমতা ফেরায় তারা। গোল করেন হাজার্ড। ক্রমাগত আক্রমণ করতে থাকে চেলসি। এর মিনিট তিনেকের মধ্যেই ফের গোল। নিজের দ্বিতীয় এবং দলের তৃতীয় গোলটি করে যান ফ্রান্সের জাতীয় দলের স্ট্রাইকার অলিভার জিরু। ম্যাচে প্রথমবারের জন্য লিড নেয় চেলসি। এর পর আক্রমণ বাড়ালেও ব্যবধান আর বাড়েনি। ঘরের মাঠে এই হারের ফলে, অবনমনের আশঙ্কা থেকে বেরোতে পারল না সাউথহাম্পটন।

ম্যাচ শেষে চেলসি কোচ অ্যান্টনিও কন্তে জানান, ” পিছিয়ে পড়ে জয় পেয়ে ভালো লাগছে। পরবর্তী ম্যাচে ছেলেরা মানসিক ভাবে এগিয়ে থাকবে”।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here