30 C
Kolkata
Friday, June 18, 2021

মারা গেলেন এশিয়াডে সোনাজয়ী এবং পিকে-চুনীর সতীর্থ ফরচুনাতো ফ্র্যাঙ্কো

আরও পড়ুন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এশিয়ান গেম্‌সে সোনা জয়ী ভারতীয় ফুটবল দলের সদস্য তথা এককালে পিকে-চুনীর সতীর্থ ফরচুনাতো ফ্রাঙ্কো প্রয়াত হলেন। সোমবার সকালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন এশিয়ান গেমসে সোনা জয়ী প্রাক্তন আন্তর্জাতিক ভারতীয় ফুটবলার। মৃত্যুকালে ৮৪ বছর বয়স হয়েছিল গোয়ার এই মিডফিল্ডারের।

কোভিডে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভরতি ছিলেন ফ্রাঙ্কো। যদিও শুধু কোভিডের কারণেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে না কি কোমর্বিডিটিও ছিল, সে ব্যাপারে নিশ্চিত করে কিছু জানা যায়নি। শেষ কয়েক দিন আইসিইউ-তে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছিলেন গোয়ার একমাত্র অলিম্পিয়ান।

Loading videos...
- Advertisement -

ফ্র্যাঙ্কোর প্রয়াণের পর এই খবর টুইট করে জানায় সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন। পাশাপাশি এআইএফএফ সভাপতি প্রফুল পটেলও শোকজ্ঞাপন করেছেন টুইটারে। লিখেছেন, ভারতীয় ফুটবলে ফ্রাঙ্কোর অবদান অনস্বীকার্য।

ভারতীয় ফুটবলের স্বর্ণালী অধ্যায় লিখতে গেলে চলে আসবে ফ্রাঙ্কোর নাম। কিংবদন্তি পিকে বন্দ্যোপাধ্যায়, চুনী গোস্বামী, তুলসীদাস বলরাম, অরুণ ঘোষ ও জার্নেল সিংয়ের সঙ্গে চুটিয়ে মাঠ শাসন করেছিলেন ফ্রাঙ্কো। হাফ-ব্যাক হিসাবে শুরু করলেও মিডফিল্ডার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন তিনি।

প্রশান্ত সিংয়ের সঙ্গে মিডফিল্ডে দুরন্ত যুগলবন্দি ছিল ফ্রাঙ্কোর। ১৯৬২ সালে ভারত এশিয়াডে সোনা ছিনিয়ে এনেছিল। দক্ষিণ কোরিয়াকে ২-১ গোলে হারিয়ে ইতিহাস লেখা ভারতীয় দলের সদস্য ছিলেন ফ্রাঙ্কো। এ ছাড়াও ফ্রাঙ্কো রোম অলিম্পিক্সে (১৯৬০) ভারতীয় দলের অংশ ছিলেন। যদিও কোনও ম্যাচে খেলার সুযোগ পাননি তিনি।

১৯৬২ সালে এশিয়ান কাপে দ্বিতীয় স্থানে শেষ করা ভারতীয় দলেও ছিলেন ফ্রাঙ্কো। ১৯৬৪ ও ১৯৬৫ সালে মার্ডেকা কাপে রুপো ও ব্রোঞ্জ জয়ী ভারতীয় দলে ছিলেন ফ্রাঙ্কো। ভারতের জার্সিতে ২৬টি ম্যাচ খেলেন ফ্রাঙ্কো।

- Advertisement -

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

- Advertisement -

আপডেট

ভোট-পরবর্তী হিংসার অভিযোগ নিয়ে রাজ্য সরকারকে বিশেষ নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট

‘ভোট পরবর্তী হিংসা’ নিয়ে রাজ্য সরকারের সমালোচনা করে হাইকোর্টের নির্দেশ।

পড়তে পারেন