aguero

ম্যান সিটি – ৩                                 ম্যান ইউনাইটেড – ১ 

ওয়েবডেস্ক: ম্যাচ শুরু হওয়ার আগে কাগজে কলমে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ম্যান ইউনাইটেডের থেকে অনেকটাই এগিয়েছিল ম্যান সিটি। কেন তাদেরকে এগিয়ে রাখা হচ্ছিল তা ম্যাচ শেষে স্কোরবোর্ড দেখলেই স্পষ্ট। চ্যাম্পিয়নশিপের তকমা ধরে রাখার লড়াইয়ে ঘরের মাঠে জয় পেয়ে লিগে শীর্ষস্থানে তারা। সঙ্গে দ্বিতীয় স্থানে থাকা লিভারপুলের থেকে দু’পয়েন্টের ব্যবধান।

ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণ শানায় পেপ গুয়ারদিওলার ছেলেরা। যার ফল ১২ মিনিটের মাথায় দলকে এগিয়ে দেন দাভিদ সিলভা। সেই সময় প্রায় ৮০ শতাংশ বল পজেশন ছিল তাঁদের। ক্রমাগত চাপ রাখার ফলে ফের সুযোগ চলে আসে। সুযোগ পান বার্নার্ড সিলভা কিন্তু তা থেকে বিপদ হয়নি। তবে পিছিয়ে পরে কিছুটা গুছিয়ে খেলার চেষ্টা চালায় ইউনাইটেড। হাফ চান্সে সুযোগ পেয়েছিলেন স্মলিংরা। কিন্তু তেমন বিপদ হয়নি। ফলে এক গোলের লিড নিয়েই বিরতিতে যায় সিটি।

প্রথমার্ধের মতো দ্বিতীয়ার্ধেও শুরু থেকে একই চিত্র সিটির। অর্থাৎ আক্রমণ। যার ফল তিন মিনিটের মাথায় ব্যবধান বাড়ান দলের তারকা খেলোয়াড় অ্যাগুয়েরো। সুযোগ পেয়েছিলেন স্টারলিংও কিন্তু কার্যকর করতে পারেননি। তবে কিছুটা খেলার বিপক্ষে গিয়ে পেনাল্টি পায় ইউনাইটেড। লুকাকুকে বক্সে সিটি গোলকিপার এডারসন ফাউল করায়। গোল করে ইউনাইটেডের হয়ে ব্যবধান কমান মার্শিয়াল। এরপর খেলায় কিছুটা ফেরে ইউনাইটেড। আক্রমণ প্রতিআক্রমণের ঝলক লক্ষ্য করা যায়। তবে ধারে ভারে কেন সিটি বাকিদের থেকে এগিয়ে তা ফের প্রমাণিত। চাপ বাড়াতে থাকা তারা। যার ফল ৮৬ মিনিটে তাদের হয়ে ব্যবধান বাড়ান গুন্ডোগান।

ফলে লিগে এখনও অপরাজিতই রইল গুয়ারদিওলার সিটি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here