কলকাতা: বারপুজোর দিন নিয়মমাফিক ক্লাবে হাজির টুটু বসু। সভাপতি পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন। তবু টুটু বসু ক্লাবে এলে প্রচারের কেন্দ্রে থাকেন তিনিই। তো কী করলেন টুটু?

মোহনবাগান সচিব ও ছোটোবেলার বন্ধু অঞ্জন মিত্রর সঙ্গে দীর্ঘ বৈঠক করলেন। তারপর বেরিয়ে এসে ডেকে নিলেন সোহিনী মিত্র ও দেবাশিস দত্তকে। দু’জনকে নিয়ে বৈঠক করলেন প্রায় এক ঘণ্টা। স্পষ্টতই ক্লাবকর্তাদের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলছে, তা মেটাতেই ব্যস্ত থাকলেন পদত্যাগী সভাপতি। বৈঠক শেষ হতেই ছেঁকে ধরলেন সাংবাদিকরা। টুটু বললেন, যতদিন তিনি জীবিত থাকবেন, অঞ্জন মিত্রকে সচিব পদ থেকে সরানো যাবে না। তারপরই সেই প্রশ্ন, সনি নর্দে কি এ মরশুমে মোহনবাগানে খেলবেন? এড়িয়ে গেলেন টুটু। বললেন, “আমি ক্লাবের কেউ নই, যা বলার অফিশিয়ালরা বলবেন”।

ধরা গেল, অর্থঈসচিব দেবাশিস দত্তকে। তাঁর কথায় স্পষ্ট কর্তাদের মধ্যে সম্পর্কের বরফ গলার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। সেসব কথা মেটার পর, তাঁর কাছেও ধেয়ে গেল সনিকে নিয়ে প্রশ্ন। এড়িয়ে গেলেন দেবাশিসও। বললেন, “কোনো কিছুই এখনও ঠিক নেই। যখন অফিশিয়ালি টিমলিস্ট ঘোষণা হবে, তখনই সব জানতে পারবেন। এটুকু বলতে পারি, আমাদের দল গঠনের কাজ নব্বই শতাংশ শেষ।”

যা বোঝার বুঝে নিন।

আরও পড়ুন: চমকপ্রদ কিছু না ঘটলে এ মরশুমে মোহনবাগানে আসছেন না সনি নর্দে

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন