mbb

মোহনবাগান – ১                                 চেন্নাই – ১ 

ওয়েবডেস্ক: ঘরের মাঠে ফের পয়েন্ট নষ্ট মোহনবাগানের। শনিবার আইলিগের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে লিগ শীর্ষে থাকা চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে এগিয়ে থেকেও পয়েন্ট ভাগাভাগি করল শঙ্করলালের ছেলেরা। গত ম্যাচে চার্চিলের কাছে হার, এই ম্যাচে ড্র। ফলে স্বাভাবিকভাবে মোহন-শিবিরে যে একটা চাপ তৈরি হল সেই নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। অন্যদিকে যত টুর্নামেন্ট এগোচ্ছে নিজেদের সেরাটা দিচ্ছে চেন্নাই। একটা দলের ফিটনেস যে বড়ো ব্যবধান গড়ে দিতে পারে টা চেন্নাইকে দেখলেই বোঝা যাচ্ছে। গত ম্যাচের মতো এই ম্যাচেও মিস-পাস, যা নিয়ে আগামী ম্যাচের আগে কিন্তু ভাবতেই হবে মোহন কোচকে।

কেন তিনি দলের এক নম্বর তারকা, তা এই ম্যাচেও প্রমাণ করলেন হাইতিয়ান ম্যাজিশিয়ান সনি নর্ডি। গোল করলেন। সারা ম্যাচ জুড়ে নিজের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করলেন। কিন্তু কোনো সাপোর্ট পেলেন না। ঘরের মাঠে অবশ্য শুরুতে চাপ বাড়ায় সবুজ-মেরুন। সুযোগ পেয়েছিলেন পিন্টু কিন্তু তাঁর গোলমুখ শট প্রতিহত করেন বিপক্ষ গোলকিপার গার্সিয়া। চাপ বাড়ান সনি, হেনরিরা। তবে গোলমুখ খোলেনি। অন্যদিকে প্রতি-আক্রমণে চাপ বাড়ায় চেন্নাইও তবে বিপদ হয়নি। ফের সুযোগ পেয়েছিলেন পিন্টু তবে এ বারও ব্যর্থ তিনি। ফলে বিরতিতে গোলশূন্যই শেষ করে দু’দল।

দ্বিতীয়ার্ধে অবশ্য শুরু থেকেই চাপ মোহনবাগানের। যার ফল ৫০ মিনিটে একক দক্ষতায় বিশ্বমানের গোলে দলকে এগিয়ে দেন সনি নর্দি।

তবে গোল করে চাপ বাড়ানোর পরিবর্তে মোহনবাগানের মিস পাসের পরিমাণ ছিল বেশি। যার অর্থ পিছিয়ে পরেও ম্যাচেও প্রবল ভাবে ফেরার চেষ্টা চালায় চেন্নাই। সুযোগ পেয়েছিলেন স্যান্ড্রো কিন্তু তাঁর হেডার পোস্টে লেগে প্রতিহত হয়। এই সময় মোহনবাগান দুর্গে বেশ কয়েকবার বিপদ হতে দেননি মোহন কিপার শঙ্কর রায়। ব্যবধান বাড়ানোর লক্ষে সুযোগ পেয়েছিল মোহনবাগান। কিন্তু সিটার মিস করেন রানাওয়াডে।

ফুটবলে যে এক গোল কখনওই নিরাপদ নয়, তা এই ম্যাচেও প্রমাণিত। ৮১ মিনিটে ডান পায়ে নেওয়া শটে চেন্নাইয়ের হয়ে সমতা ফেরান নেস্টার। সমতা ফিরিয়ে চাপ বাড়াতে থাকে চেন্নাই। ফের সুযোগ পেয়েছিলেন স্যান্ড্রো কিন্তু এক্ষেত্রেও তাঁর শট পোস্টে লেগে প্রতিহত হয়।

এই ম্যাচের পর সাত ম্যাচে ১৭ পয়েন্ট নিয়ে লিগ তালিকায় শীর্ষেই রইল চেন্নাই। অন্যদিকে ছয় ম্যাচে ৯ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে মোহনবাগান।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here