mb1-final

মোহনবাগান – ২ (শিল্টন ডি সিলভা, ডিকা)                      এরিয়ান – ০

ওয়েবডেস্ক: ডার্বির আগে মনোবল বাড়িয়ে নিল মোহনবাগান। কল্যাণীতে লিগের ম্যাচে প্রত্যাশামতোই তারা হারাল এরিয়ানকে। গত ম্যচের মতো এই ম্যাচেও শুরুটা ঝলমলে সবুজ-মেরুনের। ম্যাচের চার মিনিটেই তারা এগিয়ে যেতে পারত, তবে আম্বেকারের শট বাঁচিয়ে দেন বিপক্ষ গোলকিপার।

অবশ্য বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি কল্যাণীর মাঠে উপস্থিত দর্শকদের। নয় মিনিটে প্রথম গোল। কর্নার থেকে আসা বল হেডে নামিয়ে দেন হেনরি। সেই সুযোগ কার্যকর করতে ভুল করেননি শিল্টন ডি’সিলভা। সুযোগ পেয়েছিলেন ডিকাও তবে তাঁর শট বাইরে। পিছিয়ে থাকেনি এরিয়ানও। সুযোগ পেয়েছিলেন তাঁদের বিদেশি গ্যাচ তবে বিপদ হয়নি। ব্যবধান বাড়ানোর লক্ষে সুযোগ তৈরি করলেও তা কার্যকর করতে ব্যর্থ হয় সবুজ-মেরুন। ফলে এক গোলের ব্যবধানেই শেষ হয় প্রথমার্ধ।

দ্বিতীয়ার্ধে শুরুটা আক্রমণাত্মক মোহনবাগানের। তবে গোলের ব্যবধান বাড়াতে ব্যর্থ তারা। ধীরে ধীরে ম্যাচে ফেরার চেষ্টা চালায় ময়দানের জায়েন্ট কিলার এরিয়ানও। একই সঙ্গে কিছুটা ছন্নছাড়া ফুটবল উপহার সবুজ-মেরুনের। তবে কথাতেই আছে পুরনো চাল ভাতে বাড়ে। এ দিনের ম্যাচেও তাই প্রমাণিত। গোলদাতা শিল্টনের পরিবর্তে মেহতাব মাঠে আসতেই ম্যাচে ছন্দ ফিরে পায় মোহনবাগান। যার ফল নির্ধারিত সময়ের মিনিট ছয়েক আগে ম্যাচের দ্বিতীয় গোল ডিকার। লিগে এটি তাঁর সপ্তম গোল।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন