neymarsuitfinal

ওয়েবডেস্ক: অঘটনের রাশিয়া বিশ্বকাপ শেষ হয়েছে এক সপ্তাহ হতে চলল। টুর্নামেন্ট যত এগিয়েছে তত ইন্দ্রপতন হয়েছে। বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার আগে সবচেয়ে বেশি চর্চিত খেলোয়াড় ছিলেন মেসি,রোনাল্ডো। তাঁদের ঠিক পরেই যার নাম আসে তিনি নেইমার জুনিয়র। এই তারকাকে নিয়ে এবার অনেক আশায় ছিলেন পেলের দেশের মানুষেরা। ব্রাজিলকে ষষ্ঠ বার বিশ্বকাপ এনে দেবেন এই আশায়। কিন্তু তা হয়নি। নিজের আশানুরূপ পারফরমেন্স করতে ব্যর্থ হন। যার ফলে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় নিতে হয় তাঁদের।

বিশ্বকাপের মতো বড়ো মঞ্চে যে কোনো তারকার কাছেই বিদায় নেওয়া খুবই কষ্টকর এবং তার পর যদি তিনি কোনো বড়ো দলের প্রধান মুখ হন তাহলে তো কোনো কথাই নেই। অতীতে এমন উদাহরণ প্রচুর রয়েছে। যেমন কোপা আমেরিকা ফাইনাল হেরে মেসির আন্তর্জাতিক ফুটবলকে বিদায়। অবশ্য পরে ফের কামব্যাক করেন। ফলে এমন ঘটনা হলে খেলোয়াড়রা ভেতর ভেতর যে  ভেঙে পড়বেন সেটাই স্বাভাবিক। তাই বলে ফুটবলের দিকে আর তাকাবো না, এমনকি কাউকে ফুটবল খেলতেও দেখবো না? ঠিকই শুনছেন।

আরও পড়ুন : ইংল্যান্ড জার্সিতে ইব্রাহিমোভিচ? কী জানালেন ভিডিওয়?

সম্প্রতি নিজের নেইমার প্রাইয়া গ্রান্ডে ইন্সটিউটিটে এক অনুষ্ঠান চলাকালীন এক সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানালেন নেইমার। তিনি বলেন, ” আমি বেশি দূরে এগিয়ে বলবো না যে খেলা ছেড়ে দেবো। তবে আমি ফুটবলের দিকে তাকাতে পারছিলাম না। এবং কেউ খেলছে সেটাও দেখতে পারছিলাম না। মানসিক ভাবে অনেকটা ভেঙে পড়েছিলাম। দুঃখে ছিলাম। তবে সব কিছুই সয়ে যায়। আমার সন্তান,পরিবার, বন্ধু আছে। ওরা আমাকে এমন ভাবে দেখতে চায় না। সবসময় হাসিখুসি দেখতে অভ্যস্ত তাঁরা”।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here