neymarsuitfinal

ওয়েবডেস্ক: বিশ্বকাপে জাতীয় দলের হয়ে নিজের নামের প্রতি সুবিচার না করা। কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায়। সঙ্গে সারা টুর্নামেন্ট জুড়ে প্লে-অ্যাক্টিং নিয়ে সমালোচনা। সাধারণ মানুষেরা অনেকদিন ধরে অপেক্ষা করছিল তাঁর বক্তব্যের জন্য। ব্যর্থতার জন্য অবশেষে মুখ খুলেছেন নেইমার জুনিয়র। একটি আন্তর্জাতিক কোম্পানির বিজ্ঞাপনকে কেন্দ্র করে বিশ্বকাপ ব্যর্থতা সঙ্গে মাঠে প্লে-আক্টিং দুটোর জন্যই ক্ষমা চেয়েছেন তিনি। কিন্তু এখন তো সবই শেষ। অর্থাৎ ক্ষমা চাইলেই বা কি আর না চাইলে। দেশবাসীর মনে তো একটা ধাক্কা লেগেইছে, তা কি আর সহজে মুছে ফেলা যায়।

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপে প্লে-অ্যাক্টিংয়ের জের, ভিডিও পোস্টে অবশেষে মুখ খুললেন নেইমার

তবে এই ঘটনার পর অনেক মার্কেটিং বিশেষজ্ঞদের মতে এর প্রভাব নেইমারের ইমেজে অনেকটাই ফেলেছে।

স্পোর্টস ভ্যালুর আমির সমগির মতে, “বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার ১৫ দিন পর্যন্ত সারা মার্কেট ওর বিবৃতির জন্য অপেক্ষা করছিল”। ও তখনও অনেক সাক্ষাৎকার দিয়েছিল কিন্তু নিজের দোষ স্বীকার করেনি। আর এখন টিভির বিজ্ঞাপনে লুকিয়ে ও এইসব করছে। এটা স্পন্সরের জন্য ভাল, তবে ওর জন্য নয়”।

স্পোর্টস মার্কেটিং কন্সালটান্ট এরিক বেটিংয়ের মতে, “এই সময় বিজ্ঞাপনটা করা ভুল। নেইমারের অসুবিধাগুলো মাঠে তৈরি হয়েছে। এবং এটা মাঠেই প্রমাণ করতে হবে। এই মুহূর্তে যা ও করতে পারবে না”।

রিকার্ডো ফর্ট, যিনি কোকা-কোলার গ্লোবাল স্পন্সরসিপ ডিলের প্রধান তাঁর মতে, “নেইমারকে নিজের কেরিয়ারে শৃঙ্খলা আনতে হবে। কোনো ব্রান্ডই ফেক, অনৈতিক কাজকে সমর্থন করে না এবং তার সঙ্গে যুক্তও হতে চায় না”।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here