rm

ওয়েবডেস্ক: এগারো বছর ধরে আর্সেনালে খেলছেন ওয়েলস তারকা অ্যারন রামসে। দলের গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় তিনি। কিন্তু তাঁর সঙ্গে নতুন চুক্তিতে বসেনি আর্সেনাল কর্তৃপক্ষ। যার ফলে তাঁকে দলে নেওয়ার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে অনেক ইউরোপিয়ান হেভিওয়েট। সেই তালিকায় রয়েছে রেয়াল মাদ্রিদও।

ramsey
অ্যারন রামসে

ডেইলি মেলের খবর অনুযায়ী, বায়ার্ন মিউনিখ, জুভেন্তাসকে টপকে রেয়াল নাকি রামসের সঙ্গে এই নিয়ে কথাও বলেছে। শুধু তা-ই নয়, বাকিদের থেকে কিছুটা এগিয়ে রেয়াল, কারণ রামসের জাতীয় দলের সতীর্থ গ্যারেথ বেল রেয়ালের তারকা।

তবে শুধু খেলোয়াড় কেনাতে নয়, খেলোয়াড় বিক্রিতেও রয়েছে রেয়াল মাদ্রিদের নাম। তালিকায় সবার ওপরে টনি ক্রুজ। রেয়ালের মাঝমাঠের নির্ভরতা তিনি। শোনা যাচ্ছিল তিনি নাকি ম্যানইউতে যাওয়ার ইচ্ছাপ্রকাশ করেছেন। তবে এই সব কিছুকে নাকচ করে তিনি জানিয়েছেন, “আমি এই মুহূর্তে নিজের বাড়িতেই রয়েছি। এটা ছাড়ার কোনো কারণই নেই। এমনটা হয়তো বলেছিলাম যখন প্রথম ক্লাবে এসেছিলাম। আমি এখানে খুব খুশি”।

toni
টনি ক্রুজ

শুধু তা-ই নয়, শোনা যাচ্ছে রেয়ালের ইস্কোকে দলে নিতে চান ম্যানইউ কোচ জোসে মোরিনহো। যার জন্য দলের তারকা পল পোগবাকে ৯ কোটি পাউন্ডে রেয়ালে বিক্রি করতেও নাকি রাজি তিনি। তবে ইস্কোকে দলে নিতে চায় ম্যান সিটি এবং চেলসিও।

isco

রোনাল্ডোর রেয়াল মাদ্রিদ ছাড়ার পর, তাঁর কোনো বিকল্প এখনও আনতে পারেনি রেয়াল প্রেসিডেন্ট পেরেজ। যার প্রভাব লা লিগায় ভালোই টের পাচ্ছেন তাঁরা। গত কয়েক মাস ধরে শোনা যাচ্ছে তাঁর বিকল্প খুঁজছে রেয়াল। সেই তালিকায় সব চেয়ে এগিয়ে মারিও ইক্কারডি এবং ব্রাহিম ডিয়াজ। অবশ্য ম্যান সিটি কোচ গুয়ারদিওলা জানিয়েছেন, তাঁরা ডিয়াজকে ছাড়তে রাজি নন। আবার শোনা যাচ্ছে তাঁকে (ডিয়াজ) জানানো হয়েছে তাঁর ইচ্ছা না থাকলে তিনি ছাড়তে পারেন।

diaz
ব্রাহিম ডিয়াজ

অবশ্য ইক্কারডি এই মুহূর্তে ইন্তার ছাড়তে রাজি নন। তিনি বলেন, “এটা সঠিক সময় নয় ইতালি ছাড়ার। রেজাল্ট অনুযায়ী আমি এখানে খুব খুশি”।

icardi
মাওরো ইক্কারডি

শেষমেশ রেয়াল কাকে নেয় এবং কাদের ছাড়ে তা তো দলবদলের সময়ই লক্ষ করা যাবে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here