ronjuvefinal

ওয়েবডেস্ক: বিশ্বকাপে দেশকে তেমন সাফল্য এনে দিতে পারেননি। সম্ভত শেষ বিশ্বকাপ খেলে ফেলেছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। তবে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গেলেও, এই মুহূর্তে শিরোনামে রীতিমতো ‘হটকেক’ সি আর সেভেন। যার কারণ রেয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে সম্পর্ক ছেদ করে নতুন ক্লাব জুভেন্তাসের সঙ্গে চুক্তি। প্রায় ১০ কোটি পাউন্ডে তাঁকে জুভেন্তাসে বিক্রি করেছে রেয়াল। ফলে শেষ হল লস ব্লাঙ্কসদের সঙ্গে রোনাল্ডোর নয় বছরের চুক্তি। কিন্তু কেন? সাম্প্রতিক কালে রোনাল্ডো খারাপ খেলছিলেন, এমন তো নয়। তাহলে কেন তাঁকে ছাড়তে রাজি হল রেয়াল? আসুন জেনে নেওয়া যাক-

১। প্রথমত, রোনাল্ডো নিজেও চাননি রেয়ালের হয়ে আর খেলতে। রোনাল্ডো বয়স এই মুহূর্তে ৩৩। ফলে বেশি টাকা তাঁকে দিতে রাজি নয় রেয়াল কর্তৃপক্ষ। কারণ আরও চার বছরের চুক্তি বাকি ছিল তাঁদের মধ্যে। রোনাল্ডো নিজে কিন্তু মনে করেন মেসি, নেইমারের মতো তিনিও যোগ্য আরও বেশি রোজগার করতে। ফলে দু পক্ষের কাছেই কারণ ছিল নতুন চুক্তিতে না যাওয়ার।

২। দ্বিতীয়ত, রোনাল্ডো নিজের সেরা পারফরমেন্স অনেক আগেই পার করে এসেছে। রেয়ালের হয়ে শেষ নয় মরশুমে তাঁর ঝলক দেখেছে ফুটবলপ্রেমী জনতা। কিন্তু আগামী দিনগুলিতে রোনাল্ডোকে যে সব ম্যাচে এই ভাবে পাওয়া যাবে তার কোন গ্যারান্টি নেই। অবশ্যই কারণ বয়স। ফলে ৯.৪ কোটি পাউন্ডে দলে আনা রোনাল্ডোকে, ১০ কোটি পাউন্ডে বিক্রি করার সুযোগ হাতছাড়া করতে চায়নি ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নরা।

৩। তৃতীয়ত, রোনাল্ডোর মতো বড়ো খেলোয়াড়দের সাফল্যের অন্যতম চাবিকাঠি ইগো। দলের মুখ যে তিনিই ছিলেন তা সবারই জানা। কিন্তু ভবিষ্যতে যদি তাঁর জায়গার ধীরে ধীরে ছোটো হতে থাকতো, তাহলে অসুবিধার মধ্যে পরতে হত রেয়ালকে। যা রোনাল্ডো নিজেও মেনে নিতে পারতেন না। ফলে ঠিক সময়ে তাঁকে গুডবাই জানিয়ে সেই ঝামেলা ক্লাবের অন্দরে প্রবেশ করা থেকে আটকে দিয়েছে রেয়াল বোর্ড।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন