কলকাতা: ক্লাব সচিব অঞ্জন মিত্রর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ চূড়ান্ত পর্যায়ে নিয়ে গেলেন সৃঞ্জয় বসু-দেবাশিস দত্তরা। খেলোয়াড়দের বকেয়া সহ নানা খরচ মিলিয়ে মোহনবাগানের এই মুহূর্তে প্রায় ৩ কোটি টাকা দরকার। কিন্তু ক্লাবের ভাঁড়ার শূন্য। এই অবস্থায় টাকা জোগাড়ের জন্য সোমবার পর্যন্ত সময় নিয়েছিলেন অঞ্জনবাবু। সেই সময়সীমা এদিন পেরিয়ে যাওয়ায়, পদত্যাগ করলেন কর্মসমিতির ২৩ জন সদস্যর মধ্যে ১৪ জন। দেখে নিন কারা এদিন পদত্যাগ করলেন।

১। সত্যজিৎ চ্যাটার্জি ( ফুটবল সচিব )

২। উত্তম কুমার সাহা ( টেনিস সচিব )

৩। মহেশ কুমার টেকরিওয়াল ( কর্মসমিতির সদস্য )

৪। অসিত কুমার চ্যাটার্জি ( কর্মসমিতির সদস্য )

৫। সঞ্জয় ঘোষ ( কর্মসমিতির সদস্য )

৬। পার্থজিত দাস ( কর্মসমিতির সদস্য )

৭। তাপস চ্যাটার্জি ( কর্মসমিতির সদস্য )

৮। বিদেশ বোস ( কর্মসমিতির সদস্য )

৯। সৌমিক বোস ( কর্মসমিতির সদস্য )

১০। প্রমোদ কুমার লুন্ডিয়া ( কর্মসমিতির সদস্য )

১১। সিদ্ধার্থ রায়( কর্মসমিতির সদস্য )

১২। বিশ্বনাথ সেন ( কর্মসমিতির সদস্য )

১৩। সুরজিত নন্দি ( কর্মসমিতির সদস্য )

১৪। তন্ময় চ্যাটার্জি  ( কর্মসমিতির সদস্য )

তবে এই ১৪ জনের মধ্যে ৩ জন সাম্মানিক সদস্য। এছাড়াও রয়েছেন সৃঞ্জয় সবু, টুটু বসু ও দেবাশিস দত্ত। পদত্যাগী সহ সচিব সৃঞ্জয় বসুর দাবি, কর্ম সমিতির সদস্য শৈলেন ঘোষ অঞ্জন গোষ্ঠীর লোক হলেও, তিনি পদত্যাগ করবেন। এছাড়া ক্রিকেট ডার্বির পর পদত্যাগ করবেন ক্রিকেট সচিব সম্রাট ভৌমিক।

গোটা পরিস্থিতিটাই তৈরি করা হচ্ছে অঞ্জন মিত্রর প্রতি অনাস্থা প্রদর্শনের জন্য। এ বছর এমনিতেই ভোটের বছর। এই পরিস্থিতিতে অঞ্জনবাবু রাতারাতি নির্বাচনের পথে হাঁটেন নাকি আদালতের দ্বারস্থ হন, সেটাই দেখার।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here