সেই গোল। ছবি: এপি: নাতাচা পিসারেনকো সৌজন্যে

বৃহস্পতিবার ব্রাজিল-সার্বিয়া ম্যাচের নায়ক রিচার্লিসন (Richarlison) সতীর্থ অথবা বিপক্ষ দলের ফুটবলাররাও যথেষ্ট দক্ষতা দেখালেও এখন আলোচনায় তাঁর জোড়া গোল। বিশেষ করে তাঁর নয়নাভিরাম দ্বিতীয় গোলের ঘোর এখনও কাটছে না রাতজাগা চোখে। তাঁর দ্বিতীয় গোলটি ছিল সাইড ভলিতে, যা চলতি বিশ্বকাপের এখনও পর্যন্ত সেরা গোলের শীর্ষে জায়গা করে নেবে।

ম্যাচ দেখে মনে হতেই পারে, ম্যাচের আগাগোড়া সার্বিয়া গোল দেওয়ার জন্য খেলেনি। ব্রাজিল মুড়িমুড়কির মতো গোল করার সুযোগ পেলেও, একের পর এক সুযোগ নষ্ট করছিল। ফলে প্রথমার্ধ্বে গোলশূন্য। শেষ পর্যন্ত জোড়া গোলে ম্যাচের ভাগ্য লিখে দেন রিচার্লিসন (Richarlison)।

অন্য দিকে, নেমার গোল না পেলেও দু’টি গোলের আক্রমণই শুরু হয় নেমারের পা থেকেই। ৬২ মিনিটে বল ছিল নেমারের পায়ে। গোলের দিকে এগিয়ে যান তিনি। ডিফেন্ডাররা ঘিরে ধরলেন বক্সের মধ্যে ঢুকে সেই বল তিনি চালান করেন ভিনিসিয়াস জুনিয়রের দিকে। তাঁর শর্ট আটকে দেন গোলরক্ষক। তবে ফিরতি বলেই গোল করেন রিচার্লিসন। আবারও ৭৩ মিনিটের মাথায় নেমারের পা দিয়েই শুরু হয় আক্রমণ। আবারও বল দেন ভিনিসিয়াসকে। তাঁর ক্রস ধরেই দুরন্ত ভলিতে দ্বিতীয় গোলটি করেন রিচার্লিসন।

প্রাক্তন এভারটন ফুটবলার চারিদিকে ঘোরালেন এবং মাটি থেকে লাফিয়ে বলটি সার্বিয়ান গোলরক্ষক ভাঞ্জা মিলিঙ্কোভিচ-সাভিচকে পাশ কাটিয়ে ডান পা দিয়ে জালে পাঠান। এক সময় মনে হচ্ছিল, হয়তো বা ড্র হতে চলেছে ম্যাচ। কিন্তু শেষমেশ পয়েন্ট মাঠে ফেলে রাখার বদলে তিন পয়েন্ট নিয়ে লুসেল স্টেডিয়াম ছাড়ল ব্রাজিল।

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপ ২০০২: সার্বিয়াকে দু’ গোলে হারিয়ে ব্রাজিলের বিশ্বকাপ অভিযান শুরু

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন