mohun bagan

কলকাতা: ঘড়ির কাঁটা তখন রাত আড়াইটে ছুঁয়েছে। কলকাতা তখন গভীরে ঘুমে। কিন্তু কলকাতা বিমানবন্দরে হাজির একদল সবুজমেরুন সমর্থক। থাকবেন নাই বা কেন! ভারতীয় ফুটবলের গুরুত্বপূর্ণ দেশি-বিদেশিরা যখন চলে গিয়েছেন আইএসএল-এ তখন হাইতির ম্যাজিশিয়ান রয়ে গেছেন গঙ্গাপাড়ের ক্লাবে। সনি নর্দেকে অভ্যর্থনা জানাতে তাই কসুর করেননি বাগান সমর্থকরা। সনি এলেন পরিবারকে সঙ্গে নিয়ে।

জেটল্যাগের ক্লান্তি চোখেমুখে নিয়েও পৌঁছে গেলেন সকালের বাগান অনুশীলনে। অধিনায়কের দায়বদ্ধতা বলে কথা। হেড কোচ সঞ্জয় সেনের সঙ্গে কিছুক্ষণের আলাপচারিতা সেরে নেমে পড়লেন মাঠে।

অনুশীলন করলেন না বটে কিন্তু অনুশীলন শেষ সব খেলোয়াড়দের সঙ্গে প্রার্থনায় অংশ নিলেন। সবার সঙ্গে পরিচয় করলেন। এ মরশুমের এতদিনকার অধিনায়ক কিংশুকের থেকে জেনে নিলেন দলের হালহকিকত।

বেশ কিছুক্ষণ কথা বলেন সহকারী কোচ শঙ্করলাল চক্রবর্তীর সঙ্গে। বুধবার থেকেই নেমে পড়বেন অনুশীলনে।

ক্লাব থেকে বেরোনোর সময় তাঁকে ঘিরে সমর্থকদের পুরোনো আবেগ। সনি যে হাইতির হ্যামলিনের বাঁশিওয়ালা।

আরও পড়ুন: ব্রাজিল-ইংল্যান্ড ম্যাচের টিকিট নিয়ে ব্যাপক বিশৃঙ্খলা, পথ অবরোধ

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here