কলকাতা: ধিকিধিকি জ্বলছিলই। চলছিল কৌশলের ও আইনের লড়াই। এবার একেবারে সরাসরি অঞ্জন বনাম টুটু দ্বৈরথ মোহনবাগানে।

এক বছর আগে ক্লাবের সভাপতি পদ থেকে পদত্যাগ করেছিলেন টুটু বসু। কিন্তু পদত্যাগপত্র গৃহীত হয়নি বলে দিন কয়েক আগে তা প্রত্যাহার করে নেন টুটু। তারপরই দেবাশিস দত্ত সংক্রান্ত বিষয়ে পদাধিকার বলে বিশেষ বৈঠক ডাকেন। কয়েকদিন আগে অর্থসচিব পদ থেকে দেবাশিস দত্তর পদত্যাগপত্র গ্রহণ করে, তাঁকে ক্লাবের সাধারণ সদস্য বানিয়ে দিয়েছে ক্লাবের বর্তমান কর্মসমিতি। যার নেতৃত্বে রয়েছেন অ়্ঞ্জন। ১২ তারিখ সেই বৈঠকের কথা ছিল। একদিন আগেই টুটুকে চিঠি দিয়ে অঞ্জন জানিয়ে দিলেন, তিনি ক্লাবের প্রেসিডেন্ট নয়। কারণ, টুটুর পদত্যাগপত্র গ্রহণ না করা বা তাঁকে কাজ চালাতে বলার কোনো সিদ্ধান্ত কর্মসমিতি সে সময় নেয়নি। অতএব দেবাশিসকে নিয়ে টুটুর ডাকা বৈঠক অবৈধ।

অঞ্জনের এই পত্রাঘাতে কার্যত দিশাহারা টুটু পাল্টা মেইল করেছেন। সেখানে তাঁর বক্তব্য হল, তাঁর পদত্যাগপত্র ক্লাব গ্রহণ করেনি এবং যাবতীয় বৈঠকের নথি তাঁকে নিয়মিত পাঠানো হয়েছে। ফলে তিনি কার্যত সভাপতি ছিলেনই। সেটাই কদিন আগের চিঠিতে পুনর্প্রতিষ্ঠা করেছেন মাত্র। সঙ্গে অঞ্জনকে অনুরোধা করেছেন, যাতে তিনি তাঁর যাবতীয় সন্দেহ দূরে রেখে ১২ তারিখের বৈঠকে হাজির হন।

দেখা যাক এবার জল কোনদিকে গড়ায়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here