ওয়েবডেস্ক: ৪০ বছর পর ইতিহাস সৃষ্টি করলেন ইরানের মহিলারা। নিজেদের প্রিয় দলের ফুটবল ম্যাচ দেখতে হাজির হলেন স্টেডিয়ামে। আর সেই ইতিহাসের সাক্ষী থাকলেন দুই বাঙালি রেফারি।

রক্ষণশীল ইরানে মহিলাদের মাঠে ঢুকে ম্যাচ দেখা এক্কেবারে নিষিদ্ধ। ব্যবস্থা এতটাই কড়া যে গত মাসে পুরুষের ছদ্মবেশে এক মহিলা ফুটবল স্টেডিয়ামে হাজির হয়েছিলেন। তবে তিনি ধরা পড়ে যান এবং সরকারের রোষ থেকে বাঁচতে গায়ে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন।

এর পর ইরানের ওপরে চাপ বাড়ায় ফিফা। জানিয়ে দিয়েছিল মহিলাদের খেলা দেখার অনুমতি না দিলে নির্বাসিত করা হবে গোটা দলকে। এই চাপেই ব্যাকফুটে চলে যায় ইরান ফুটবল সংস্থা। মহিলাদের জন্য খুলে দেওয়া হয় স্টেডিয়ামের দরজা।

কম্বোডিয়ার বিরুদ্ধে বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জনকারী ম্যাচকে ঘিরে গোটা দেশেই সাজো সাজো রব ছিল। আলাদা করে মহিলাদের জন্যই চার হাজারের কাছাকাছি টিকিট ছাপিয়েছিল ইরান ফুটবল ফেডারেশন।

আরও পড়ুন ব্র্যাডম্যানের থেকে ছিনিয়ে এই বিশাল রেকর্ডটির মালিক এখন কোহলি!

এই ঐতিহাসিক ম্যাচ পরিচালনা করেই নজির গড়লেন দুই বঙ্গসন্তান প্রাঞ্জল বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অসিত সরকার। ব্যাপারটা যে বাংলার ফুটবল তথা গোটা বাংলার কাছে অত্যন্ত গর্বের সেটা তো বলার অপেক্ষা রাখে না।

এই ম্যাছে কম্বোডিয়াকে ১৪-০ গোলে উড়িয়ে দেয় ইরান। মহিলাদের চিৎকারের মধ্যে এই ম্যাচ যেন ইরানের কাছে আরও বেশি তাৎপর্যের হয়ে উঠল।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন