কলকাতা: ভারতীয় ফুটবলের প্রাণকেন্দ্র কলকাতা। সে কথা এআইএফএফ যেমন জানে, তেমনই জেনে ফেলেছে ফিফা। কাউন্সিল মিটিং-এর পর ফিফা সভাপতির সাংবাদিক বৈঠকে তার স্বীকৃতিও মিলেছে। সেই স্বীকৃতিতেই জুড়ে গেল আরও একটা পালক।

আরও পড়ুন: “ক্রিকেট ভুলে যান, ফুটবলই ভবিষ্যত”, ভারতবাসীকে বললেন ফিফা প্রেসিডেন্ট

জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমির ঢঙে ফেডারেশনও যে ফুটবলের ন্যাশনাল সেন্টার ফর এক্সেলেন্স তৈরি করতে চায়, ফেডারেশনের সভাপতি প্রফুল প্যাটেল তা কিছুদিন ধরেই বলছিলেন। এদিনের কাউন্সিল মিটিং-এও যে তিনি সে বিষয়টি ফিফার কাছে রেখেছেন, তা খোলাখুলি ভাবে জানান সাংবাদিক বৈঠকে। তাঁর পাশে তখন ফিফার প্রেসিডেন্ট জিয়ানি ইনফ্যান্তিনো। প্রফুল এও বলেন যে সেন্টার ফর এক্সেলেন্সের ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা তাঁরা যথা সময়ে করবেন। কোথায় সেটা হবে, সেটাও জানানো হবে ঘোষণার সময়েই। ওই সেন্টারের জন্য ফিফার কাছে থেকে টেকনিক্যাল ও অন্যান্য সহায়তা চেয়ে আবেদনও জানান তিনি। ইনফ্যান্তিনো উত্তরে বলেন, ভারত তাঁদের অগ্রাধিকারে রয়েছে।

রহস্য পরিষ্কার হল কয়েক ঘণ্টা পরই। এদিন ফিফাকে সম্মান জানাতে রাজারহাটের ইকো পার্কে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। অনুষ্ঠানের প্রথম ৪৫ মিনিটের আয়োজক ছিল রাজ্য সরকার। সেখানে হাজির হয়ে মঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেন, ফুটবলের ন্যাশনাল সেন্টার ফর এক্সেলেন্সের জন্য রাজারহাটে বিনা পয়সায় ১৫ একর জমি দেবে রাজ্য সরকার।

যে শহরে বিশ্বকাপ ফুটবলের কোয়ার্টার ফাইনাল, সেমিফাইনাল আর ফাইনাল একসঙ্গে হতে পারে, সেখানে ছাড়া আর কোথায়ই বা হতে পারত এই সেন্টার।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here