brawlfinal

ওয়েবডেস্ক: ফুটবল বডি কন্ট্যাক্ট খেলা। খেলোয়াড়দের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি, ঠেলাঠেলি প্রায় প্রতি ম্যাচেই দেখা যায়। কিন্তু তাঁর জন্য মাঠে রয়েছেন রেফারি। কড়া হাতে ম্যাচে নিয়ন্ত্রণ রাখার জন্য। কিন্তু অনেক সময় সেই রেফারির দেওয়া রায় মেনে নিতে পারেন না খেলোয়াড়রা। যার ফলে বাক বিতণ্ডা অনেক বড়ো আকার নেয় এবং যা থেকে পরিস্থিতি হাতের বাইরেও চলে যায়। অতীতে এমন ঘটনার উদাহরণ সারা বিশ্ব জুড়ে রয়েছে। ফের কিন্তু তেমনই এক ঘটনার সাক্ষী থাকল আর্জেন্তিনা।

আরও পড়ুন: পশ্চাদ্দেশের সাহায্যে গোল করে হ্যাটট্রিক সম্পূর্ণ করলেন ফুটবলার

লিগের ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল ইউনিভার্সিতারিও এবং লিবার্টেড। আর সেখানেই এমন চিত্র। যার ফলে চার জন মহিলা ফুটবলারকে হাসপাতালে পাঠানো হয়। ঘটনার সূত্রপাত, রেফারির পেনাল্টি দেওয়া রায়-কে কেন্দ্র করে। ইউনিভার্সিতারিও-র পক্ষে পেনাল্টি দেন রেফারি। এই সিদ্ধান্ত মানতে পারেননি বিপক্ষ ফুটবলাররা। হয়ও তাই। রায়ের বিরুদ্ধে তর্ক করায় বিপক্ষের এক কোচকে মাঠ থেকে বার করে দেন রেফারি। যা থেকে কথা কাটাকাটি শুরু। একইসঙ্গে ইউনিভার্সিতারিও-র এক খেলোয়াড় ফেন্সের বাইরে থাকা বিপক্ষের এক কোচের সঙ্গে তুমুল ঝগড়া শুরু করেন। যা দেখে দৌড়ে এসে ইউনিভার্সিতারিও-র সেই খেলোয়াড়কে ধাক্কা মারে লিবার্টেডের এক খেলোয়াড়। তারপর যা হওয়ার তাই হল। তুমুল হাতাহাতি, মারামারি। লাথি, ঘুসি সবই ছিল।

লিগের প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, “ঝামেলায় জড়িত খেলোয়াড়দের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে”।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন