গ্যারেথ ব্যাটি। বয়স ৩৯ ছুঁইছুঁই। শেষ টেস্ট খেলেছিলেন ২০০৫-এ। সারের হয়ে কাউন্টি খেললেও বোধহয় কখনোই ভাবতে পারেননি যে আবার টেস্ট দলে ফেরার সুযোগ আসতে পারে। সেই চমকপ্রদ ঘটনাই ঘটল শুক্রবার। ইংল্যান্ড দলে প্রত্যাবর্তন করলেন ব্যাটি।

সামনের মাসেই বাংলাদেশে দুটি টেস্ট খেলবে ইংল্যান্ড। তার ঠিক পরের মাসেই পাঁচটি টেস্টের সিরিজে ভারতে আসবে তারা। উপমহাদেশের স্পিন সহায়ক পিচের কথা মাথায় রেখেই ব্যাটিকে ফিরিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নির্বাচকরা। ইংল্যান্ড দলে এখন স্পিনারের অভাব। মঈন আলি কাজের কাজ করে দিলেও তিনি মূলত অল রাউন্ডার। ভারত বা বাংলাদেশের পিচে তাঁর স্পিন কতটা কাজে আসবে সেই প্রশ্ন থেকেই যায়। ইংল্যান্ড দলের অপর স্পিনার আদিল রশিদ এক দিনের ক্রিকেটে সফল হলেও টেস্টে এখনও পর্যন্ত সে ভাবে সফল নন। এই দুজনের সাথে অভিজ্ঞ ব্যাটিকে যোগ করলে স্পিন বোলিং বিভাগে আরও শক্তিশালী হবে ইংল্যান্ড।

পাশাপাশি চার বছর আগের ভারত সফরের কথাও নির্বাচকদের মাথায় ছিল নিশ্চয়ই। ভালো স্পিনার থাকলে যে ঘূর্ণি পিচেও ভারতকে হারিয়ে দেওয়া যায় সেই বারই প্রমাণ করেছিল ইংল্যান্ড। কিন্তু সাত টেস্টে মাত্র ১১ উইকেট নেওয়া ব্যাটি আদৌ ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের ভয় দেখাতে পারবেন কি না সে প্রশ্ন থেকেই যায়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here