সানি চক্রবর্তী: জোয়াকিম লো নিজের দলকেই জয়ের পরে খোঁচা দিয়ে বলেছিলেন ‘ভাগ্যবান’। দু’দিনের মধ্যেই কোচকে উত্তর দিল তাঁর দল। উদিত সূর্যের দেশ নরওয়েকে ৬-০ ব্যবধানে গুঁড়িয়ে দিয়ে কোচের মুখের হাসি চওড়া করলেন মুলার-ক্রুজরা। আগের ম্যাচে চেক প্রজাতন্ত্রের বিরুদ্ধে জিতলেও বিশ্ব চ্যাম্পিয়নসুলভ ঝাঁঝ ছিল না জার্মানির খেলায়। এদিন নরওয়ের বিরুদ্ধে কিন্তু জার্মানসুলভ খুনে মানসিকতার আগ্রাসী ফুটবল দেখা গেল। প্রতিপক্ষ তুলনামূলক দুর্বল হলেও ওয়ের্নার-ওজিলদের দাপুটে ফুটবল ছিল এককথায় চোখধাঁধানো। প্রথমার্ধেই মেসুত ওজিল, জুলিয়ান ড্র্যাকলার ও টিমো ওয়ের্নারের জোড়া গোলের সুবাদে ৪ গোলের লিড নেয় জার্মানি। দ্বিতীয়ার্ধে পরিবর্ত লিওন গোরেত্জগা ও মারিও গোমেজ আরও দুটি গোল করেন। এদিনের ম্যাচের পরে গ্রুপ সি-এর ৮টি ম্যাচের সবকটি জিতে ২৪ পয়েন্টে পৌঁছে গেল জার্মানি। নিয়মের ফেরে স্রেফ গ্রুপ শীর্ষে থেকে সরাসরি বিশ্বকাপের ছাড়পত্র পাওয়াটাই যা বাকি তাদের। কারণ, এদিন চেক প্রজাতন্ত্রকে ২-০ ফলে হারিয়ে সমসংখ্যক ম্যাচে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থান ধরে রাখল নর্দান আয়ারল্যান্ড। দুই দেশের মধ্যে পয়েন্টের ফারাক ৫, আর গ্রুপে ম্যাচ বাকি ২ টি করে। তাই পরের ম্যাচে জিতলেই জার্মানির গ্রুপ সি চ্যাম্পিয়ন হয়ে বিশ্বকাপে যাওয়া পাকা।

এদিকে, স্লোভাকিয়ার বিরুদ্ধে লড়ে জয় ছিনিয়ে আনল ইংল্যান্ড। পিছিয়ে পড়ে জয় ছিনিয়ে আনার যে ম্যাচের শুরুতে ভিলেন থেকে শেষপর্যন্ত হিরো হয়ে উঠলেন মার্কাস রাশফোর্ড। খেলা শুরুর কিছুক্ষণের মধ্যেই রাশফোর্ডের ভুলের সুযোগ নিয়ে লবোটকার গোলে এগিয়ে গিয়েছিল স্লোভাকিয়া। প্রথমার্ধের মাঝামাঝি পর্যন্ত গ্যারেথ সাউথগেটের প্রশিক্ষণাধীন দল খেলা ধরতেই ব্যর্থ হচ্ছিল। আস্তে আস্তে খেলার দখল নেওয়ার পরে প্রথমার্ধ শেষের কিছুটা আগে সমতা ফেরায় ইংল্যান্ড। রাশফোর্ডের কর্নার থেকে বুদ্ধিদীপ্তভাবে এগিয়ে পায়ের টোকায় গোল করে যান এরিক ডায়ার। আর দ্বিতীয়ার্ধের ৫৯ মিনিটের মাথায় দলের জয়সূচক গোলটি করে নিজের ভুলের প্রায়শ্চিত্ত করেন রাশফোর্ড। বক্সের ঠিক বাইরে থেকে এই তরুণের ডান পায়ের বাঁক খাওয়ানো শটে ২-১ ফলে ম্যাচ জেতে ইংল্যান্ড। এই জয়ের ফলে ৮ ম্যাচে ২০ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ এফ-এ শীর্ষস্থানে নিজেদের অবস্থান দৃঢ় করল ইংল্যান্ড। সমসংখ্যক ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট পাওয়া স্লোভাকিয়া রয়ে গেল দ্বিতীয় স্থানেই। তাই ইংল্যান্ড পরের ম্যাচে জিতলেই রাশিয়ার টিকিট পাকা করে ফেলবে।

এদিকে গ্রুপ ই-তে কাজাখস্থানকে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়ে গ্রুপের শীর্ষস্থান ধরে রাখল পোল্যান্ড। ৮ ম্যাচের পরে তাদের পয়েন্ট ১৯। গতম্যাচে পোল্যান্ডকে হারিয়ে চমক দেওয়া ডেনমার্ক অষ্টম রাউন্ডে আর্মেনিয়াকে ৪-১ ফলে হারিয়ে রয়েছে ১৬ পয়েন্টে। ডেনমার্কের সঙ্গেই গা ঘেঁষাঘেষি করে ১৬ পয়েন্টেই রয়েছে মন্টিনোগ্রো।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here