হেরাত-মেন্ডিস জাদুতে কাত অস্ট্রেলিয়া, ইতিহাস সৃষ্টি শ্রীলঙ্কার

0

ব্যাট হাতে ২১ বছরের তরুণের তাণ্ডব, আর বল হাতে ৩৮ বছরের অভিজ্ঞের ঘূর্ণি। অভিজ্ঞতা আর তারুন্যের মিশেলে অস্ট্রেলিয়াকে ভির্মি খাওয়াল শ্রীলঙ্কা। টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে মাত্র দ্বিতীয়বার তাদের হারাল এই দ্বীপরাষ্ট্রটি।

এক দিকে স্টিভ স্মিথের অধিনায়কত্বে টেস্ট র‍্যাঙ্কিং-এ প্রথম স্থান দখল করা অস্ট্রেলিয়া আর অন্যদিকে কুমার সঙ্গকারা-মাহেলা জয়বর্ধনদের হারিয়ে র‍্যাঙ্কিং-এ সপ্তম স্থানে নেমে যাওয়া শ্রীলঙ্কা। এই টেস্ট শুরুর আগে শ্রীলঙ্কার অতি বড়ো সমর্থকও তাদের প্রিয় দলের ওপর বাজি রাখেননি। অস্ট্রেলিয়ার কাছে লজ্জাজনক হার দেখার ভয়ে স্টেডিয়ামের পথে পাও মাড়াননি তাঁরা। কিন্তু অঘটন ঘটল, এবং ঘটল প্রথম ইনিংসে পিছিয়ে থেকেও। ২১ বছরের এক তরুণের অবিশ্বাস্য ব্যাটিং-এ ঘুরে গেল ম্যাচের মোড়। হেরে গেল অস্ট্রেলিয়া।

টেস্টের প্রথম দিন প্রথমে ব্যাট করে মাত্র ৩৪ ওভারে ১১৭-এ গুটিয়ে গিয়েছিল শ্রীলঙ্কা। তিন স্পিনার নিয়ে নামা শ্রীলঙ্কার কাছে চ্যালেঞ্জ ছিল যতটা কম রানে সম্ভব অস্ট্রেলিয়াকে আটকে রাখা। এই দায়িত্ব নিজের হাতে নিয়ে নেন ৩৮ বছরের স্পিনার রঙ্গনা হেরাথ। যোগ্য সঙ্গত দেন এই টেস্টে অভিষেক ঘটানো বাঁহাতি চায়নাম্যান বোলার লক্ষ্মণ সন্দাকন। এই দুজনের জন্য প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কার থেকে ৮৬ রানে এগিয়ে মাত্র ২০৩-এই আটকে যায় অস্ট্রেলিয়া। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমেও মুখ থুবড়ে পড়ে শ্রীলঙ্কা। ৮৬ রানের মাথায় চার উইকেট হারায় তারা। প্যাভিলিয়নে ফিরে গিয়েছেন অধিনায়ক আঞ্জেলো ম্যাথিউজও। এই অবস্থায় দলের হাল ধরেন চার নম্বরে ব্যাট করতে নামা, মাত্র ৬ টেস্টের অভিজ্ঞতা সম্পন্ন কুশল মেন্ডিস। তার চমৎকার প্রতি আক্রমণে ম্যাচে ক্রমে ফিরতে শুরু করে শ্রীলঙ্কা। তাঁর সাথে ছয় নম্বর ব্যাটসম্যান দীনেশ চণ্ডীমল আর সাত নম্বর ধনঞ্জয় ডি সিলভার পার্টনারশিপের সৌজন্যে ম্যাচের রাশ ক্রমাগত হালকা হতে থাকে অস্ট্রেলিয়ার। মেন্ডিস নিজে করেন ১৭৯। দ্বিতীয় ইনিংসে শ্রীলঙ্কা শেষ হয় ৩৫৩ রানে।

উপমহাদেশের পিচে চতুর্থ ইনিংসে দুশোর বেশি রানের টার্গেট তাড়া করা কখনই সুবিধার নয়। ২৬৮ রানের টার্গেট নিয়ে চতুর্থ দিন ব্যাট করতে নেমে অস্ট্রেলিয়াও ফাঁপরে পড়ে। শুরু থেকেই স্পিন আক্রমণের সামনে ধসে যেতে শুরু করে তাদের ব্যাটিং। অধিনায়ক স্মিথ ছাড়া কেউই প্রতিরোধ গড়তে পারেননি। পঞ্চম দিন শুরু থেকে ভেল্কি দেখানো শুরু হেরাতের। নবম উইকেটে নেভিল আর ও’কিফ কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে তুলেছিলেন। হার এড়ানোর জন্য পর পর কুড়িটা মেডেন ওভার খেলেন তারা, কিন্তু ফের শ্রীলঙ্কার রক্ষাকর্তা হিসেবে উদয় হন হেরাত। অস্ট্রেলিয়া অল আউট হয় ১৬১ রানে। এই নিয়ে নিজের কেরিয়ারে ২৪ বার পাঁচ অথবা তার বেশি উইকেট নিলেন হেরাত। ম্যান অফ দ্য ম্যাচ পুরস্কার পান মেন্ডিস।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন