কোহলি-কুম্বলে দ্বন্দ্ব মেটাতে ইংল্যান্ড উড়ে গেলেন বিসিসিআই কর্তারা

0
388

নয়াদিল্লি: চ্যাম্পিয়নস ট্রফি খেলতে যাওয়া ভারতীয় ক্রিকেট দলে এখন ক্যাপ্টেন-কোচ দ্বন্দ্বের ঘন কালো মেঘ। কোহলি-কুম্বলের সম্পর্ক নিয়ে নানা গুঞ্জন ছিল বহুদিন ধরেই। কুম্বলের কাজের ধরন যে কোহলি পছন্দ করেন না, তা জানতেন ক্রিকেট মহলের অনেকেই। সেই গুঞ্জন তীব্র হয়, যখন জানা যায়, ব্যাপক সাফল্য সত্ত্বেও কুম্বলের সঙ্গে চুক্তি পুনর্নবীকরণ করছে না বিসিসিআই। তাঁকে নতুন করে পরীক্ষায় বসতে হবে অন্যান্য হেডকোচ পদপ্রার্থীদের সঙ্গে।

শোনা যাচ্ছিল কুম্বলে টাকা নিয়ে দরদস্তুর করায় ক্ষুব্ধ হয়েছে বিসিসিআই। কিন্তু ক্রমশ জানা যাচ্ছে, টাকাপয়সাই একমাত্র কারণ নয়, মূল বিষয় ক্যাপ্টেনের সঙ্গে ভারতের সর্বকালের সেরা লেগস্পিনারের মতভেদ। সেই মতভেদ এমনই পর্যায়ে পৌঁছেছে যে দ্বন্দ্ব মেটাতে ইংল্যান্ড উড়ে যাচ্ছে বিসিসিআই কর্তারা। বিসিসিআই-এর দায়িত্বপ্রাপ্ত সচিব অমিতাভ চৌধুরীর ইংল্যান্ড যাওয়া আগে থেকেই ঠিক ছিল। কিন্তু জেনারেল ম্যানেজার, ক্রিকেট অপারেশনস এম শ্রীধরের ইংল্যান্ডে যাওয়ার কোনো কথাই ছিল না। তিনিও উড়ে গেছেন আজ। সঙ্গে ভারতীয় দলের সঙ্গে বৈঠক করতে যাচ্ছেন সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত বিসিসিআই-এর প্রশাসক কমিটির প্রধান বিনোদ রাই-ও।

বিসিসিআই কর্তাদের মধ্যে এম শ্রীধরকে ক্রিকেটাররা অত্যন্ত শ্রদ্ধা করেন। ২০০৭-০৮ সালে অস্ট্রেলিয়া সফরে মাঙ্কিগেট বিতর্কের সময় তিনিই ছিলেন ভারতীয় দলের মিডিয়া ম্যানেজার। মজার কথা, সে সময় ভারতীয় দলের অধিনায়ক ছিলেন অনিল কুম্বলে।

৪ চারিখ ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ দেখে বার্মিংহাম থেকে ফিরবেন বিসিসিআই কর্তারা।

বিসিসিআই-এর প্রশাসক কমিটি থেকে পদত্যাগ করলেন রামচন্দ্র গুহ

এদিকে বিসিসিআই-এর প্রশাসক কমিটি থেকে পদত্যাগ করলেন শিক্ষাবিদ ও ক্রীড়া বিশেষজ্ঞ রামচন্দ্র গুহ। সুপ্রিম কোর্টে তাঁর আইনজীবী জানিয়েছেন ব্যক্তিগত কারণেই পদত্যাগ করছেন তিনি। যদিও সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, যে বেঞ্চ এই বিষয়টি দেখছে, তাঁরাই বিষয়টির নিষ্পত্তি করবে। সেই শুনানি হবে আগামী ১৪ জুলাই।

তবে যেটুকু জানা গেছে, সময়ের অভাবের কথা বললেও, কুম্বলে ইস্যুও রামচন্দ্র গুহর পদত্যাগের অন্যতম কারণ। কুম্বলের সঙ্গে হেডকোচ পদের চুক্তি পুনর্নবীকরণ না করাটা পছন্দ হয়নি গুহর। যদিও জানুয়ারিতে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে কমিটি অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটরসের যে কটি বৈঠক হয়েছে, তার মাত্র অর্ধেকেই উপস্থিত থেকেছেন এই ক্রিকেট ইতিহাসবিদ। তবে সম্প্রতি ক্রিকেটারদের প্রাপ্য অর্থ বৃদ্ধির যে সিদ্ধান্ত বিসিসিআই নিয়েছে, তার পেছনে মূল মাথা ছিলেন তিনিই। তাঁর সঙ্গে কুম্বলেরও যথেষ্ট ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক।

গুহর আইনজীবী শীর্ষ আদালতে জানিয়েছেন, তিনি তাঁর পদত্যাগের সিদ্ধান্ত গত ২৮ মে প্রশাসক কমিটির প্রধান বিনোদ রাইকে জানিয়ে দিয়েছেন। যদিও প্রশাসক কমিটির এক সদস্যের কথায়, তিনি এ বিষয়ে কিছুই জানতেন না।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here