বেঙ্গালুরু: আইপিএল এগিয়ে আসতেই রাগ কমে গেলো বিরাট কোহলির। ধর্মশালা টেস্টের পর বলেছিলেন, “অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের সঙ্গে বন্ধুত্ব শেষ”। তীব্র ও তিক্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ভারত-অস্ট্রেলিয়া সিরিজ শেষ হওয়ার পর ভারত অধিনায়কের ওই মন্তব্যে ভুরু কুঁচকেছিলেন অনেকেই। কারণ ততক্ষণে সিরিজ চলাকালীন ‘খারাপ ব্যবহারের’ জন্য ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন অসি অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ।

আরও পড়ুন: অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের সঙ্গে বন্ধুত্ব শেষ, বললেন ক্ষুব্ধ বিরাট

স্মিথের ক্ষমা চাওয়ায় অনেকেই ছাপ দেখেছিলেন আসন্ন আইপিএল-এর। কারণ পুনে দলে ভারতীয় ক্রিকেটারদের নেতৃত্ব দিতে হবে তাঁকে, যাদের মধ্যে থাকবেন মহেন্দ্র সিং ধোনিও।

এবার স্মিথের পথেই হাঁটলেন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু দলের অধিনায়ক। বিরাট এদিন তাঁর টুইটার হ্যান্ডেলে মন্তব্য করেছেন, “ম্যাচের শেষে সাংবাদিক সম্মেলনে আমি যে মন্তব্য করেছিলাম, তা ফুলিয়ে ফাঁপিয়ে দেখানো হয়েছে। আমি মোটেই গোটা অস্ট্রেলিয়া দলকে উদ্দেশ করে ও কথা বলিনি। বলেছি গোটা দুয়েক অসি ক্রিকেটারকে লক্ষ্য করে।”

“যে ক’জন অস্ট্রেলিয় ক্রিকেটারকে আমি ব্যক্তিগত ভাবে চিনি এবং যাদের সঙ্গে আমি আরসিবি দলে খেলি, তাঁদের সঙ্গে অবশ্যই সুসম্পর্ক বজায় রাখবো”, বলেছেন বিরাট। 

 

বেঙ্গালুরু দলে কোহলির নেতৃত্বে খেলবেন তিন জন অস্ট্রেলিয়। শেন ওয়াটসন, ট্র্যাভিস হেড এবং বিলি স্ট্যানলেক। 

ধর্মশালা টেস্টের পর কোহলির মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা হয় অস্ট্রেলিয় মিডিয়ায়। ‘কোহলির কোনো জাত নেই, ওর আচরণ শিশুসুলভ’ মন্তব্য করে একটি অস্ট্রেলিয়ার কাগজ। দ্য ডেইলি টেলিগ্রাফ বলে, কোহলি ‘ক্রীড়াদুনিয়ার ডোনাল্ড ট্রাম্প”।  

  

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here