winter olympics

ওয়েবডেস্: বড়ো ধরনের ক্রীড়া প্রতিযোগিতার আসর বসলেই কি তার পেছন পেছন চলে আসে ভাইরাসের আতঙ্ক? পরিস্থিতি দেখে তো সে রকমই মনে হয়। ২০১৬-এর রিও অলিম্পিকের সময়ে যেমন জিকা ভাইরাসের আতঙ্ক গ্রাস করেছিল, তেমনই শীতকালীন অলিম্পিককে তাড়া করছে নোরোভাইরাস আতঙ্ক।

যদিও এমনও হতে পারে যে নোরোভাইরাস কিছুই প্রভাব ফেলল না, তবুও আয়োজকরা কোনো ঝুঁকি নিতে চাইছেন না। ঝুঁকি নেবেনই বা কী করে! আয়োজক দেশ হিসেবে দক্ষিণ কোরিয়ার সম্মান জুড়ে রয়েছে যে।

আয়োজকদের তরফ থেকে জানানো হয়েছে গত রবিবার থেকে নোরোভাইরাস ছড়াতে শুরু করে, যখন পিয়ংচ্যাং-এর জিনবু অঞ্চলে কর্মরত কয়েক জন বেসরকারি নিরাপত্তাকর্মী, মাথাব্যথা, পেট ব্যথা এবং ডায়েরিয়ার কথা বলেন। এর পরেই নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। অলিম্পিকের নিরাপত্তার সঙ্গে সম্পর্কিত অন্তত ১২০০ জনকে ঘরবন্দি করে রাখা হয়েছে। এর মধ্যে ১,০২৩ জনের স্বাস্থ্যপরীক্ষা করা হয়েছে। এঁদের মধ্যে তিন বিদেশি-সহ ৩২ জনের রক্তে নোরোভাইরাসের জীবাণু পাওয়া গিয়েছে।

যে হেতু যাঁরা অসুস্থ এবং যাঁদের পরীক্ষা চলছে সবাই নিরাপত্তাকর্মী, তাই তাদের বদলে ৯০০ জন সেনাকর্মীকে নিরাপত্তার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। অলিম্পিকের খেলা হবে এমন কুড়িটি কেন্দ্রে নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করবেন তাঁরা, যত দিন না অসুস্থ নিরাপত্তাকর্মীরা ফিরে আসেন।

নোরোভাইরাসের জীবাণু রয়েছে কি না তা দেখতে রান্না এবং খাওয়ার জলের পরীক্ষা করেছিল অলিম্পিকের কর্তৃপক্ষ। তবে তাতে কোনো জীবাণু মেলেনি। এখন পিয়ংচ্যাং-এর বিভিন্ন রেস্তোরাঁয় পরীক্ষা চালানো হবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

নিজেদের সুস্থ রাখতে ক্রীড়াবিদ এবং অলিম্পিকের সঙ্গে সম্পর্কিত সবার জন্যই বিশেষ নির্দেশিকা পাঠিয়েছে কর্তৃপক্ষ। নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, সবাইকে অন্তত তিরিশ সেকেন্ড ধরে হাত ধুতে হবে, জল গরম করে খেতে হবে, খাওয়ার আগে ফল এবং শাকসবজি ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে।

এমনিতেই বাতাসে একটা ধারণা ভাসছে যে খেলা আয়োজন করতে ব্যর্থ হবে দক্ষিণ কোরিয়া। প্রচুর ভুলভ্রান্তি থাকবে আয়োজকদের তরফে, থাকা এবং খাওয়ার ব্যবস্থা হবে অপর্যাপ্ত, অতিরিক্ত ঠান্ডা আবহাওয়ায় গরমের সরঞ্জাম বিশেষ থাকবে না। এ সবের মধ্যেই দক্ষিণ কোরিয়ার চিন্তা বাড়িয়েছে এই নোরোভাইরাস। বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে দাবি করা হচ্ছে যে নোরোভাইরাসের সম্পর্কে অনেক তথ্যই গোপন করছে দক্ষিণ কোরিয়া।

এই আবহে আয়োজক হিসেবে দক্ষিণ কোরিয়া সফল ভাবে উত্তীর্ণ হয় কি না সেটাই দেখার।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন