খবর অনলাইন: অলিম্পিক্সে সলমন খানকে ভারতের ‘শুভেচ্ছা দূত’ (গুডউইল অ্যাম্বাসাডর) করার তীব্র সমালোচনা করলেন উড়ন্ত শিখ মিলখা সিং। তিনি বলেছেন, সলমনের জায়গায় কোনও ক্রীড়াবিদকে নির্বাচন করা উচিত ছিল। “আমি মনে করি, আমাদের খেলোয়াড়েরা যাঁরা অলিম্পিক্সে দেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন, তা তিনি অ্যাথলেটিক্স বা শুটিং কিংবা ভলিবল বা অন্য যে কোনও খেলার সঙ্গে যুক্ত থাকুন না কেন, ভারতের প্রকৃত দূত। আমাদের যদি ‘শুভেচ্ছা দূত’ পাঠাতেই হয়, তা হলে ক্রীড়াজগৎ থেকেই পাঠানো উচিত।”

৮৫ বছরের কিংবদন্তি ক্রীড়াবিদ বলেন, ভারত অনেক খেলোয়াড় তৈরি করেছে, যাঁরা দেশের জন্য ঘাম-রক্ত দিয়েছেন – পি টি উষা, রাজ্যবর্ধন সিং রাঠোর, অজিত পাল, আরও কত। এঁদের মধ্যে যে কাউকে অলিম্পিক্সে দেশের ‘শুভেচ্ছা দূত’ করা যেতে পারত। বলিউড থেকে একজনকে আমদানি করার কী দরকার ছিল ?

মিলখা পরিষ্কার জানিয়ে দেন, “আমি সলমন খানের বিরোধী নই। আমি এটাই বলতে চাই ইন্ডিয়ান অলিম্পিক্স অ্যাসোসিয়েশনের এই সিদ্ধান্ত ভুল। এই প্রথম দেখলাম বলিউডের এক জন হিরোকে অলিম্পিক্সে দেশের ‘শুভেচ্ছা দূত’ করা হল। আমি জানতে চাই বলিউড কি কখনও তাদের কোনও মেগা ইভেন্টে কোনও ক্রীড়াবিদকে ‘শুভেচ্ছা দূত’ করেছেন?”

সলমন খানকে ‘শুভেচ্ছা দূত’ করার সিদ্ধান্ত সংশোধন করার দাবি জানিয়েছেন মিলখা।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here