সানি চক্রবর্তী:

ইঙ্গিতটা মঙ্গলবার সকালের অনুশীলনেই ছিল স্পষ্ট। এএফসি কাপের ম্যাচটা আখেরে নিয়মরক্ষার, মোহনবাগান শিবির কোনোমতেই আই লিগের খেতাবি দৌড় থেকে নজর সরাতে চাইছে না। শনিবার আইজলের বিরুদ্ধে অ্যাওয়ে ম্যাচে নামার আগে তাই তরুপের সমস্ত আস্তিন গুটিয়ে নিয়েছে তারা। মাজিয়া স্পোর্টস অ্যান্ড রিক্রিয়েশন ক্লাবের বিরুদ্ধে এএফসি কাপের গ্রুপ পর্বের তৃতীয় ম্যাচে তাই নামছে বাগানের রিজার্ভ বেঞ্চ। প্রথম একাদশের প্রায় সব ফুটবলারকেই বিশ্রাম দেওয়ার পথে হাঁটছেন সঞ্জয় সেন। ক্লাব কর্তারা বা সমর্থকরাও যদিও তেমনটাই চাইছিলেন।

মাজিয়ার বিরুদ্ধে ১৮ জনের দলে একমাত্র বিদেশি অধিনায়ক কাটসুমি উসা। খুব একটা প্রয়োজন না পড়লে তাঁর নামার কোনো সম্ভাবনা নেই। গোলে হয়তো তৃতীয় গোলরক্ষক শিবিন রাজ। মাঝমাঠে শৌভিক চক্রবর্তী, উইংয়ে প্রবীর, আপফ্রন্টে বলবন্ত বা জেজে ছাড়া তরুণরাই এই ম্যাচে বাগানের নৌকার পাল সামলানোর দায়িত্বে। বার্তাটা খুব পরিষ্কার, মাজিয়ার বিরুদ্ধে হারলেও কুছ পরোয়া নেহি। এখনও গ্রুপে তিন ম্যাচ বাকি রয়েছে, পরে দেখে নেওয়া যাবে এএফসি। আপাতত মিশন আই লিগ।

এ দিন বাগান জনতার প্রাণভোমরা সনি তাঁবু ছেড়ে বেরোনোর মুখে এক দল সমর্থক মিনার্ভা ম্যাচের নায়ককে মালা পরিয়ে সংবর্ধনা জানালেন। আর সম্মিলিত জনতার একটাই দাবি উঠল, জিততেই হবে আইজল ম্যাচ। অঙ্কের খাতিরে যদিও আইজল ম্যাচ ড্র করে ফিরলেও চ্যাম্পিয়ন হওয়ার দৌড়ে ফেভারিট থাকবে মোহনবাগানই। কিন্তু ড্র বা কোনো রকম আপসের মানসিকতা রেখে নামতে নারাজ বাগান শিবির। আইজলে জিতেই তিন বছরের মধ্যে দ্বিতীয় বার আই লিগটা জিতেই ফিরতে চাইছে তারা।

মাজিয়া ম্যাচের সম্ভাব্য একাদশ: শিবিন রাজ, সার্থক, কিংশুক, বিক্রমজিত (জুনিয়ার), শৌভিক ঘোষ, বিক্রমজিত (সিনিয়র), শৌভিক চক্রবর্তী, প্রবীর দাস, কিন লিউইস, আজহারউদ্দিন, বলবন্ত / জেজে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here