বেঙ্গালুরু: প্রথমে হার। তারপর পরপর দুটো ম্যাচ ড্র। আই লিগ থেকে ক্রমেই দূরে সরে যাচ্ছে সবুজমেরুন। এর পরেও যে ফিরে আসা যায় না, তা নয়। তবে, তার জন্য মোহনবাগানের জয়ে ফেরার পাশাপাশি খারাপ খেলতে হবে ইস্টবেঙ্গল, আইজলকে। 

কিন্তু সে সব পরের কথা। মোহনবাগানের গোটা দলটাকেই অসম্ভব ক্লান্ত এবং ছন্দহীন দেখাচ্ছে গত কয়েকটা ম্যাচ ধরে।  এদিন সোনি বেশ নিষ্প্রভ থাকলেও, প্রথমার্ধটা ভালই খেলছিলেন বলবন্ত, প্রীতম কোটালরা। ২৭ মিনিটে কাতসুমির ফ্রিকিকে চমৎকার হেডও নিয়েছিলেন বলবন্ত। কিন্তু গোলকিপার দারুণ সেভ করলেন। ৩৪ মিনিটে প্রীতমের গড়ানো শট গোলের বাইরে গেল। ৪৩ মিনিটে ডাফির চেষ্টাও কাজে এল না। তবু মনে হচ্ছিল, এভাবে চললে, ৩ পয়েন্ট এসে যাবে সবুজমেরুনের।

কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে পুরো দাঁড়িয়ে গেল দলটা। নীল জার্সির আক্রমণে শুধু ডিফেন্স করাই কাজ হয়ে দাঁড়িয়েছিল সঞ্জয় সেনের ছেলেদের। তবু ভাল, যে ডিফেন্সের দোষে মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে ২ গোল খেতে হয়েছিল, শনিবার দলকে বাঁচালেন সেই এদুয়ার্দোরাই। এর মধ্যেই লাল কার্ড দেখে ফেললেন শুভাশিস বসু। আই লিগে দু’বার লাল কার্ড দেখা হয়ে গেল তাঁর। তখন ১০ জনের মোহনবাগানকে দেখে মনে হচ্ছিল গোল খাওয়া শুধু সময়ের অপেক্ষা। হয়নি। বরং ৮১ মিনিটে একবার জালে বল জড়িয়ে দিয়েছিলেন কাতসুমি। কিন্তু সম্ভবত কোনো ফাউলের কারণে গোল বাতিল হয়ে যায়।

এদিন গোটা ম্যাচ জুড়েই জয়ের জন্য মরিয়া ছিলেন সুনীল ছেত্রীরা। কিন্তু মোহন-ডিফেন্স তাঁদের স্বপ্ন সফল হতে দিল না।

১২ ম্যাচে ২৩ পয়েন্ট নিয়ে এখনও ৩ নম্বরেই থাকল মোহনবাগান। কিন্তু দূরত্ব বেড়ে গেল ১ ও ২ নম্বরের সঙ্গে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here