সিবিআই চান নরসিংহ, রিও যাওয়ার আশা কার্যত শেষ

0

খবর অনলাইন: এক দিকে নরসিংহ যাদব সিবিআই তদন্ত চাইছেন, অন্য দিকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলছেন নরসিংহের রিও যাওয়ার আশা প্রায় শেষ।

দিল্লিতে ৩১ জুলাই অনুষ্ঠিতব্য ‘রান ফর অলিম্পিকস’ অনুষ্ঠানের কথা ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী বিজয় গোয়েল সোমবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন, ডোপিং-এর ব্যাপারে যে আন্তর্জাতিক বিধি আছে সেই বিধি মেনে ‘ওয়াডা কোড’ কড়াকড়ি ভাবে রূপায়ণ করে নরসিংহের বিষয়টির নিষ্পত্তি করা হবে। আত্মপক্ষ সমর্থনে নরসিংহকে অবাধ সুযোগ দেওয়া হবে। তবে তাঁর রিও অলিম্পিক্সে যাওয়ার সম্ভাবনা কার্যত আর নেই। সাংবাদিক সম্মেলনের শুরুতেই মন্ত্রী বলে দেন, “রিও অলিম্পিক্সে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করবেন ১১৯ জন।” আগে ঠিক ছিল ১২০ জন রিওগামী ভারতীয় দলে থাকবেন।

মন্ত্রীকে প্রশ্ন করা হয়, রিও-র বাস ধরার সুযোগ এখনও নরসিংহের আছে কি না? জবাবে ক্রীড়ামন্ত্রী বলেন, “নরসিংহের দু’টো নমুনাই পজিটিভ হয়েছে। তাঁকে অস্থায়ী ভাবে সাসপেনশনে রাখা হয়েছে। তাই বলেছি ভারতের প্রতিনিধিত্ব করবেন ১১৯ জন।”

তাঁকে কলঙ্কিত করতেই তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হয়েছে বলে নরসিংহ যে অভিযোগ করেছেন, সে সম্পর্কে প্রশ্ন করা হলে মন্ত্রী বলেন, “উনি আমাদের এ কথা বলেননি। আমরা জানি না।”

এ দিকে নরসিংহ গোটা ঘটনাটি নিয়ে সিবিআই তদন্ত চেয়েছেন। তিনি বলেন, “পুরো ব্যাপারটা নিয়ে সিবিআই তদন্ত হওয়া উচিত। আমার বাছাইয়ের বিষয়টা আদালতে গিয়েছে। আমার জীবনের আশঙ্কা আছে বলে সিআইডি রিপোর্ট দিয়েছিল। এ সব বিষয় থেকে পরিষ্কার, আমার রিও যাওয়া আটকাতেই আমাকে ফাঁসানো হয়েছে। আমি আমার অভিযোগ ফেডারেশনে জমা দিয়েছি। তাতে পরিষ্কার বলেছি, আমার জন্য মেসে যে খাবার রান্না করা হয়েছিল, তাতে কিছু মেশানো হয়েছিল। এটা আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র।”

বুধবার নাডা প্যানেলের সামনে ২৬ বছরের এই অ্যাথলিট তাঁর নির্দোষিতার কথা বলবেন। নরসিংহের আশা, গোটা ঘটনা যে তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র, তা তিনি প্যানেলের সদস্যদের বুঝিয়ে বলতে পারবেন।

নরসিংহের সিবিআই তদন্ত চাওয়া নিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “আইন আইনের পথে চলবে। আমরা কিছু করতে পারি না। নাডা প্যানেল ব্যাপারটা দেখুক, তার পর আমরা দেখব।”

 এ দিকে নরসিংহের ষড়যন্ত্র-তত্ত্বে চটেছে স্পোর্টস অথরিটি অব ইন্ডিয়া (সাই)। সাই-এর এক উচ্চপদস্থ অফিসার বলেন, সাই সেন্টার থেকে যে খাবার সরবরাহ করা হয়, তা সব সময় পরীক্ষা করে দেওয়া হয়। এবং ফেডারেশনই তা পরীক্ষা করে। তা হলে উনি কী বলতে চান ? খাবারে নিষিদ্ধ ওষুধ মেশানোয় জড়িত সাই ? অতীতে যখনই কোনও অ্যাথলিটের বিরুদ্ধে ডোপিং প্রমাণিত হয়েছে, তখনই তাঁরা বলেছেন তাঁরা নির্দোষ, তাঁদের ফাঁসানো হয়েছে। এটা নতুন কিছু নয়। এখন সব কিছু ঠিক করবে নাডা প্যানেল। পরিস্থিতি যা, তাতে নরসিংহের রিও যাওয়ার কোনও আশা নেই। এ ব্যাপারে ওয়াডার বিধি খুব কড়া। এ ধরনের ঘটনায় নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করা খুব কঠিন।

ওই অফিসার স্পষ্ট জানিয়ে দেন, “তা বলে সুশীল কুমারেরও রিও যাওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই। এন্ট্রি পাঠানোর শেষ তারিখ পেরিয়ে গিয়েছে। ৭৪ কেজি ফ্রিস্টাইল বিভাগে ভারতের কোনও প্রতিনিধি থাকবে না।”        

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন