এক বছর আগে  নেপালের বিধ্বংসী ভূমিকম্পে প্রাণ যায় হাজার হাজার মানুষের। কিন্তু সেই সর্বগ্রাসী ভূমিকম্পের কবল থেকে বেঁচে এ বার রিও-র জলে। হ্যাঁ , আশ্চর্য হলেও সত্যি। ঠিক এমনটাই ঘটেছে নেপালের গৌরীকা সিংহের জীবনে। এই গৌরীকাই রিও অলিম্পিকে কনিষ্ঠতম প্রতিযোগী। ১৩ বছরের গৌরীকা রিওতে ১০০ মিটার ব্যাকস্ট্রোক বিভাগের প্রতিযোগী।

গৌরীকা জানায়, নেপালে জন্ম হলেও মাত্র ২ বছর বয়সে সে লন্ডনে চলে যায়। সেখানেই বেড়ে ওঠা। ২০১৫ সালে নেপালের কাঠমান্ডুতে ভূমিকম্পের সময় গৌরীকা তার মা গরিমা ও ভাই সৌরেনের সঙ্গে সেখানেই ছিল। ভূমিকম্পের দিন একটি বহুতলের ৫ তলায় একটি টেবিলের নীচে প্রায় ১০ মিনিট জীবন হাতে করে বসেছিলেন তাঁরা। এ ভাবেই জীবন-যুদ্ধে বেঁচে যান তাঁরা।

১৩ বছর বয়সের মধ্যেই সে বেশ কয়েকটি বড় প্রতিযোগিতায় জেতে। ১১ বছর বয়সে নেপালের ন্যাশনাল চ্যাম্পিয়নশিপে ৭টি জাতীয় রেকর্ড ভাঙেন গৌরীকা।  গৌরীকার ধারণা ছিল না এত কম বয়েসে সে অলিম্পিকে নামার সুযোগ পাবে। তাই সে প্রচণ্ড খুশি। মেয়ের সাফল্যের ব্যপারে খুবই আশাবাদী গৌরীকার বাবা প্রসাদ সিংহ।  

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here