Connect with us

খেলাধুলো

ইংল্যান্ডেই শাপমুক্তি, ভারতকে উড়িয়ে চ্যাম্পিয়ন পাকিস্তান

পাকিস্তান: ৩৩৮-৪ (ফকর ১১৪, আজহার ৫৯, যাদব ১-২৭)

ভারত: ১৫৮ (হার্দিক ৭৬, যুবরাজ ২২, আমির ৩-১৬)

লন্ডন: ফের ফাইনালের জুজু ভর করল ভারতের ওপর। আইসিসি টুর্নামেন্টে পাকিস্তানের ওপর ভারতের আধিপত্য মাত্র একটি ম্যাচেই চুরমার হয়ে গেল। মোক্ষম ম্যাচে ভারতকে উড়িয়ে দিল পাকিস্তান।

শাপমুক্তি হল মহম্মদ আমিরের। এই ইংল্যান্ডেই সাত বছর আগে মাচ ফিক্সিং-এর অভিযোগে চরম শাস্তি নেমে এসেছিল মহম্মদ আমিরের ওপর। সেই ইংল্যান্ডেই কার্যত একার হাতে ভারতীয় ব্যাটিং-এর ঘাড় মটকে দিলেন তিনি।

শাপমুক্তি হল গোটা পাকিস্তান দলের। শুধু আমির নন, সাত বছর আগে ওই ঘটনার জেরে পাকিস্তান ক্রিকেট দলটাকেই সন্দেহের চোখে দেখতেন ক্রিকেটভক্তরা। ক্রিকেট ম্যাচ এবং গড়াপেটা, দু’টি পাকিস্তান দলের সঙ্গে ওতপ্রোত ভাবে জড়িয়ে গিয়েছিল। সেই ইংল্যান্ডের মাটিতেই বিশ্বমানের টুর্নামেন্ট জিতলেন টিম সরফরাজ।

ফর্মে থাকা ভারতীয় বোলারদের যে ভাবে শাসন করে গেলেন পাক ব্যাটসম্যানরা, সেটা কেউ ভাবতেও পারেননি। রবিবার টসে জিতে ফিল্ডিং-এর সিদ্ধান্ত নেন কোহলি। শুরুর দু’তিন ওভার পরেই দাপট দেখাতে শুরু করেন পাক ওপেনার আজহার আলি এবং ফকর জমান।

অবশ্য ভাগ্যও কিছুটা সহায় ছিল পাকিস্তানের ওপর। চতুর্থ ওভারেই বুমরাহ-এর বলে ধোনির হাতে ক্যাচ দেন ফকর, কিন্তু রিপ্লেতে দেখা যায় সেটা নো-বল। এটা ছাড়াও প্রথম পনেরো ওভারের মধ্যে বেশ কয়েকটি রান আউটের সুযোগও মিস করে ভারত। তবে রান আউটেই প্রথম আঘাত হানে ভারত। ক্রিজে জমে গিয়েছেন ফকর এবং আজহার। দু’জনকে ফেরানোর শত চেষ্টা করেও ব্যর্থ বোলাররা। আজহারের নিজের ভুলেই প্রথম উইকেটটি পায় ভারত। রান আউট হয়ে যান তিনি।

তবে আজহার আউট হলেও ফকর কিন্তু ভারতীয় বোলারদের শাসন করে যান। বাঁ হাতি ফকর পরতে পরতে সঈদ আনোয়ারের কথা মনে করিয়ে দিচ্ছিলেন। ভারতের বিরুদ্ধে নামলেই জ্বলে উঠতেন আনোয়ার। ফকরও ভারতের বিরুদ্ধে প্রথম সুযোগেই জ্বলে উঠলেন। শুধু জ্বলেই উঠলেন না, হাঁকালেন শতরান।

ফকর আউট হলেও মহম্মদ হাফিজ এবং বাবর আজমের ইনিংসের সুবাদে পাহাড়প্রমাণ রান খাড়া করে পাকিস্তান।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে আমিরের বিধ্বংসী স্পেলেই উড়ে যায় ভারতীয় টপ অর্ডার। প্রথম তিন ওভারের মধ্যেই রোহিত এবং বিরাটকে ফেরান আমির। পিচে তখন রীতিমতো আগুন ছোটাচ্ছেন তিনি। তাঁর আগুনে পেস কোনো রকমে সামলে একটা প্রতিরোধ তৈরির চেষ্টা করেন যুবরাজ এবং ধাওয়ান। নিজের ফর্মের ঝলক যখন দেখানো শুরু করেছিলেন তখনই ফের আমিরের শিকার ধাওয়ান। প্রশংসা করতে হয় সদাব খানেরও। মাত্র আঠারো বছর বয়সি হওয়া সত্ত্বেও যে ভাবে তাঁর অধিনায়ককে জোর করিয়ে রিভিউ নেওয়ালেন এবং তাতে যুবরাজের উইকেটটা পেলেন, সেটা শিক্ষণীয়।

তবে ষষ্ঠ উইকেটের পর ভারতের জন্য ছোট্টো একটা আশা জাগিয়েছিলেন হার্দিক পাণ্ড্য। চাপমুক্ত হয়ে খেলে ছক্কার পর ছক্কা হাঁকাচ্ছিলেন তিনি। তাঁকে সঙ্গত দিয়ে যাচ্ছিলেন রবীন্দ্র জাদেজাও। তবে বিশ্রী ভাবে রান আউট হন তিনি। ৬টা ছয় এবং চারটে চারের সাহায্যে ৪৩ বলে ৭৩ করেন তিনি।

তবে হার্দিক আউট হওয়ার পর, পাকিস্তানের জয় ছিল শুধুমাত্র সময়ের অপেক্ষা।

ক্রিকেট

আগামী সপ্তাহ থেকেই ইডেন গার্ডেনসে কোয়ারান্টাইন কেন্দ্র

সিএবি সূত্রে জানানো হয়েছে, যাঁদের কোনো উপসর্গ নেই, অথচ ফল এসেছে পজিটিভ, তাঁদেরই রাখা হবে এখানে।

কলকাতা: কলকাতা পুলিশের (Kolkata Police) অনুরোধ ছিল, তাদের কর্মীরা বা আধিকারিকরা যাঁরা করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন, তাঁদের জন্য ইডেন গার্ডেনসে কোয়ারান্টাইন কেন্দ্রের ব্যবস্থা করা হোক।

সেই অনুরোধ মেনে নিয়েছে সিএবি (CAB)। ইডেনের হাইকোর্ট প্রান্তের চারটি গ্যালারির নীচে এই কেন্দ্রের ব্যবস্থা করা হল পুলিশকর্মীদের জন্য। শুক্রবার রাতে তড়িঘড়ি এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

লালবাজারে পুলিশ প্রশাসনের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক করেন সিএবি প্রেসিডেন্ট অভিষেক ডালমিয়া (Avishek Dalmiya)। সেখানেই অভিষেককে অনুরোধ করা হয়, ইডেনের গ্যালারির কিছুটা অংশে যেন পুলিশকর্মীদের নিভৃতবাসের ব্যবস্থা করা হয়।

প্রথম ভারতীয় স্টেডিয়াম হিসেবে মুম্বইয়ের ওয়াংখেড়েকে পরিণত করার কথা ছিল কোয়ারান্টাইন কেন্দ্র হিসেবে। কিন্তু মহারাষ্ট্র সরকার সেই সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে। বোর্ড প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় (Sourav Ganguly) আগেই বলে দিয়েছিলেন, প্রয়োজনে ইডেনও দেওয়া হবে কোয়ারান্টাইন কেন্দ্রের জন্য।

শুক্রবার সিএবি জানিয়ে দেয়, ‘ই, এফ, জি ও এইচ’ ব্লকের নীচে এই কেন্দ্রের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। প্রয়োজনে ‘জে’ ব্লকেও এর ব্যবস্থা করা হবে। সিএবি সূত্রে জানানো হয়েছে, যাঁদের কোনো উপসর্গ নেই, অথচ ফল এসেছে পজিটিভ, তাঁদেরই রাখা হবে এখানে।

এ দিন বৈঠকের পরেই কলকাতা পুলিশের প্রতিনিধিরা ইডেন পরিদর্শন করতে আসেন। উপস্থিত ছিলেন সিএবি প্রেসিডেন্ট অভিষেক ডালমিয়া ও সচিব স্নেহাশিস গঙ্গোপাধ্যায়ও। 

আগামী সপ্তাহেই এই কোয়ারান্টাইন কেন্দ্র খুলে দেওয়া হবে। তবে আক্রান্তদের আলাদা গেট দিয়ে প্রবেশ করার অনুমতি দেওয়া হবে। বিশেষত গেট নম্বর ১০ ও ১২ নম্বর দিয়ে প্রবেশ করবেন আক্রান্ত পুলিশকর্মী ও তাঁর পরিবারের সদস্যেরা।

Continue Reading

ফুটবল

এটিকে-মোহনবাগানের নতুন লোগো প্রকাশিত, জার্সির রঙ সবুজমেরুনই

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আসন্ন মরশুমে ‘এটিকে মোহনবাগান’ (ATK Mohunbagan) নাম নিয়েই খেলতে চলেছে দল। শুক্রবার মোহনবাগান এটিকের কর্তাদের মধ্যে আলোচনার পর এমন সিদ্ধান্ত হয়ে গেল।

এ দিন প্রকাশ্যে এল ক্লাবের নতুন লোগোও। আগের মতো এ বারও লোগোয় পালতোলা নৌকাই থাকছে। তবে সেই লোগোয় লেখা থাকছে ‘এটিকে মোহনবাগান ফুটবল ক্লাব’। একই সঙ্গে জার্সির রংও সবুজ-মেরুনই থাকছে।

এটিকে মোহনবাগান ডিরেক্টর সৃঞ্জয় বোস ও দেবাশিস দত্ত জানান, ক্লাবের ১৩১ বছরের ইতিহাস এবং মর্যাদা যাতে অক্ষুণ্ণ থাকে, সেই জন্যই দলের জার্সির রঙে বদল আসছে না। এই ব্যাপারে একমত এটিকে কর্তারাও।

এর ফলে আসন্ন মরশুমে রয় কৃষ্ণ-ডেভিড উইলিয়ামসরা সবুজ-মেরুন জার্সি পরেই খেলতে চলেছেন। এতে সমর্থকদের আবেগও একই রকম থাকবে বলে মনে করছেন ক্লাব কর্তারা।

এ দিন বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন এটিকের সহ-কর্ণধার সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ও। এটিকে ও মোহনবাগানের গাঁটছড়া বেঁধে নতুন পথ চলাকে স্বাগত জানান তিনি। সৌরভ বলেন, “দুটি ক্লাবের একসঙ্গে হাত মেলানোকে স্যালুট জানাচ্ছি। এটিকে-মোহনবাগান ব্র্যান্ড নামটা একত্রিত ভাবে নতুন ইতিহাস গড়বে।”

এটিকের কর্ণধার সঞ্জীব গোয়েঙ্কা বলেন, “মোহনবাগানে কিংবদন্তিরা খেলে গিয়েছেন। তাঁদের আশীর্বাদ নিয়েই নতুন করে পথচলা। গঙ্গাপারের ক্লাবের ঐতিহ্য অক্ষুণ্ণ রেখেই খেলবে এই দল। এই দলকে আন্তর্জাতিক মানের করে গড়ে তোলাই আমার স্বপ্ন।”

Continue Reading

ক্রিকেট

করোনাভাইরাস অতিমারির জের, ২০২১-এর জুন পর্যন্ত এশিয়া কাপ স্থগিত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: করোনাভাইরাস (coronavirus) সংক্রমণের জেরে স্থগিত হয়ে গেল এশিয়া কাপ (Asia Cup)। ২০২১-এর জুন মাস পর্যন্ত এই টুর্নামেন্ট স্থগিত করে দিল এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি, Asian Cricket Council, ACC)।

এশিয়া কাপ স্থগিত হয়ে যাওয়ার ফলে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল, IPL) অনুষ্ঠিত হওয়ার পথ আরও প্রশস্ত হল বলে মনে করছে ক্রিকেট মহল। করোনার জেরে টি২০ বিশ্ব কাপও পিছিয়ে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে। এখন ফ্র্যানচাইজি-ভিত্তিক আইপিএল-এর সংগঠকরা সেপ্টেম্বর থেকে নভেম্বরের মধ্যে এই টুর্নামেন্ট করার আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছে।

বুধবারই বিসিসিআই (BCCI) সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি (Sourav Ganguly) এ বছরের এশীয় টুর্নামেন্ট বাতিল করে দেওয়ার কথা জানান। যদিও এই টুর্নামেন্ট আয়োজন করার অধিকার ছিল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (PCB)। সৌরভের ঘোষণার এক দিন পরেই এ বছরের জন্য আনুষ্ঠানিক ভাবে বাতিল হয়ে গেল এশিয়া কাপ।

টি২০ বিশ্ব কাপ এ বছর অক্টোবর-নভেম্বরে হওয়ার কথা। এশিয়া কাপ এক বছর পিছিয়ে যাওয়ার পরে আইসিসিও (ICC) সম্ভবত এই টুর্নামেন্ট পিছিয়ে দেবে।

কী বলেছে এসিসি

এসিসি বৃহস্পতিবার টুইট করে বলেছে, “কোভিড ১৯ (Covid 19) অতিমারির প্রভাব অনুধাবন করে এবং সব দিক ভালো করে বিবেচনা করার পরে এসিসি-র একজিকিউটিভ বোর্ড ২০২০-এর সেপ্টেম্বরে যে এশিয়া কাপ টুর্নামেন্ট হওয়ার কথা ছিল তা স্থগিত করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত করেছে।”

এক বিবৃতিতে এসিসি বলেছে, “এশিয়া কাপ টুর্নামেন্টের উপর কোভিড ১৯ অতিমারির কী প্রভাব পড়তে পারে তা মূল্যায়ন করার জন্য এসিসি-র একজিকিউটিভ বোর্ড বহু বার বসেছে।”

এই টুর্নামেন্ট আয়োজন করলে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত যে ঝুঁকি থাকবে, তা কখনোই উপেক্ষা করতে পারেনি এসিসি বোর্ড। উল্লেখ্য, বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি এবং সেক্রেটারি জয় শাহ এসিসি বোর্ডের সদস্য।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, “নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী টুর্নামেন্ট আয়োজন করার ব্যাপারে গোড়া থেকেই আগ্রহী ছিল বোর্ড। কিন্তু ভ্রমণ সংক্রান্ত নিষেধাজ্ঞা, কোয়ারান্টাইন সংক্রান্ত বিভিন্ন দেশের নিয়মবিধি, স্বাস্থ্য সংক্রান্ত ঝুঁকি এবং শারীরিক দূরত্বের বিধি এই টুর্নামেন্ট আয়োজন করার ব্যাপারে যথেষ্ট চ্যালেঞ্জ সৃষ্টি করেছে।”

“আর সর্বোপরি যোগদানকারী খেলোয়াড়, সাপোর্ট স্টাফ, বাণিজ্যিক অংশীদার, ক্রিকেটভক্ত এবং সামগ্রিক ভাবে ক্রিকেট সম্প্রদায়ের নিরাপত্তা এবং স্বাস্থ্যের ঝুঁকির বিষয়টি সব চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ”, বলা হয়েছে বিবৃতিতে।

এশিয়া কাপ ২০২০-এর আয়োজন করার অধিকার ছিল পাকিস্তানের। নিরাপত্তার কারণে পাকিস্তান সেই অধিকার শ্রী লঙ্কা ক্রিকেট-এর (এসএলসি, SLC) কাছে হস্তান্তর করেছে।

এসিসির আরও বক্তব্য

এসিসি বলেছে, “সমস্ত দিক সতর্কতার সঙ্গে বিবেচনা করে এসিসি বোর্ড টুর্নামেন্ট স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত করেছে। দায়িত্বশীল ভাবে টুর্নামেন্ট আয়োজন করার ব্যাপারটিই এসিসি-র অগ্রাধিকার এবং বোর্ড আশা করে ২০২১-এ এই টুর্নামেন্ট আয়োজন করা যাবে।”

“এশিয়া কাপের জন্য ২০২১-এর জুনে যাতে সুবিধামতো সময় পাওয়া যায়, সেটা নির্ধারণ করার কাজই করছে এসিসি”, বলা হয়েছে বিবৃতিতে।

নতুন ব্যবস্থায় পরবর্তী এশিয়া কাপ ২০২১-এর সম্ভবত জুন মাসে আয়োজন করবে এসএলসি। ২০২২-এর টুর্নামেন্ট হোস্ট করবে পিসিবি।

Continue Reading
Advertisement
দেশ4 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২৭১১৪, সুস্থ ১৯৮৭৩

কলকাতা3 days ago

কলকাতায় লকডাউনের আওতায় পড়া এলাকাগুলির পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশিত

ক্রিকেট3 days ago

১১৬ দিন পর শুরু আন্তর্জাতিক ক্রিকেট, হাঁটু গেড়ে বসে জর্জ ফ্লয়েডকে স্মরণ ক্রিকেটারদের

দেশ2 days ago

সক্রিয় করোনা রোগীর ৯০ শতাংশই আটটি রাজ্যে!

রাজ্য2 days ago

ঘুমের মধ্যেই চলে গেলেন মহীনের অন্যতম ‘ঘোড়া’ রঞ্জন ঘোষাল

LPG
দেশ3 days ago

উজ্জ্বলা যোজনায় বিনামূল্যের এলপিজি সিলিন্ডার পাওয়ার মেয়াদ বাড়ল আরও তিন মাস

কলকাতা2 days ago

করোনার পাশাপাশি কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে শুরু হচ্ছে অন্যান্য রোগের চিকিৎসা

শিক্ষা ও কেরিয়ার2 days ago

শুক্রবার আইসিএসই, আইএসসি-র ফল

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 days ago

ঘরের একঘেয়েমি আর ভালো লাগছে না? ঘরে বসেই ঘরের দেওয়ালকে বানান অন্য রকম

খবরঅনলাইন ডেস্ক : একে লকডাউন তার ওপর ঘরে থাকার একঘেয়েমি। মনটাকে বিষাদে ভরিয়ে দিচ্ছে। ঘরের রদবদল করুন। জিনিসপত্র এ-দিক থেকে...

কেনাকাটা4 days ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

কেনাকাটা5 days ago

রান্নাঘরের টুকিটাকি প্রয়োজনে এই ১০টি সামগ্রী খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের মধ্যে আনলক হলেও খুব দরকার ছাড়া বাইরে না বেরোনোই ভালো। আর বাইরে বেরোলেও নিউ নর্মালের সব...

কেনাকাটা6 days ago

হ্যান্ড স্যানিটাইজারে ৩১ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

অনলাইনে খুচরো বিক্রেতা অ্যামাজন ক্রেতার চাহিদার কথা মাথায় রেখে ঢেলে সাজিয়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের সম্ভার।

নজরে