সানি চক্রবর্তী :

শাহরুখ খান আর রোনাল্ডিনহোর মধ্যে মিল কোথায় প্রশ্ন শুনে মনে হতেই পারে কী উদ্ভট। আসলে ইস্টবেঙ্গলের সমর্থকদের নজরে কোথাও গিয়ে যেন এক বিন্দুতে মিলে যাচ্ছেন দুই ভিন্ন জগতের সুপারস্টার। আর এই দু’জনের মধ্যে সেতুর নাম উইলিস ডিওন প্লাজা। দু’জনই তাঁর খুব পছন্দের তারকা। ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তি ও বলিউডের কিং খান দু’জনেই নিজেদের ক্ষেত্রে অন্যতম সেরা। আর সব থেকে বেশি তাঁকে টানে দু’জনের সরলতা। নিজেও মাটির কাছাকাছি থেকে নিজের ক্ষেত্রে সেরা হয়ে উঠতে চান এই ত্রিনিদাদ ও টোবাগোর জাতীয় দলের ফুটবলার। তাই সমর্থকদের আবদার মেটাতে চেন্নাই ম্যাচের টিকিট ক্লাবের পক্ষ থেকে নিয়ে তুলে দেন তাঁদের হাতে।

ভারতীয় ফুটবলে ইস্টবেঙ্গলের জার্সিতে মাত্র কয়েক ম্যাচেই ছাপ ফেলেছেন। এ বার সেটা দীর্ঘস্থায়ী করার লক্ষ্যেই এগোতে চাইছেন। আই লিগ নিয়ে জানতে চাওয়াতে বলছিলেন, “এখানে প্রতিটা ম্যাচেই অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করছি। প্রত্যেক খেলায় জানছি, শিখছি। আশা করি প্রথম রাউন্ডের শেষে গোটা ব্যাপারটা সম্পর্কে পরিষ্কার একটা ধারণা তৈরি হবে।” আপাতত গোটা ইস্টবেঙ্গল শিবিরের মতোই চেন্নাই ম্যাচেই শুধুমাত্র মনোনিবেশ করেছেন। আসন্ন ডার্বি নিয়ে এই মুহূর্তে খুব একটা ভাবছেন না। সমর্থকরা রোজ তাঁকে ডার্বিতে গোল করার আবদার করছেন, তাতে হয়তো ইতিমধ্যেই গুরুত্বটা টের পাচ্ছেন। তবে কলকাতার দুই প্রতিদ্বন্দ্বীর মহারণ নিয়ে তাঁর জানা বলতে দেশোয়ালি কর্নেল গ্লেনের ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে করা গোল। বললেন, “ক্যারিবিয়ান ফুটবল সংস্থা গ্লেনের গোল ইউটিউবে আপলোড করেছিল। ওটা দেখেছি। এ ছাড়া কোনো ধারণা নেই ডার্বি সম্পর্কে।” আর ভারতীয় ফুটবল ঘিরে তাঁর ধারণা বলতে গুরু স্টিভেন আবারোয়ির দেওয়া তথ্য। শিলিগুড়ির ডার্বি দেখতে উপস্থিত থাকবেন প্লাজার গুরু ও মোহনবাগানকে জাতীয় লিগ জেতানো নাইজিরীয় স্টিভেন। তার জন্য কি চাইবেন ডার্বিতে গোল উপহার দিতে? গুরুর কথা উঠতেই বিনম্র প্লাজার কথায়, “নিশ্চয়ই চাইব। আমি সব সময় গোলের পরে স্টিভেনের কথাই মনে করি। ও না থাকলে আজ এতদূর আসতেই পারতাম না।”

চেন্নাই ম্যাচে জিতে ডার্বিতে নামার আগে আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নিতে আলাদা করে অনুশীলনও করতে দেখা গেল তাঁকে। আর আগে কোনো ডার্বি খেলেছেন কি না জানতে চাওয়াতে আড়চোখে তাকিয়ে বলে গেলেন, “খেলব না কেন, আমি তো আমার দেশের কিং।”

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন