পিচে সবুজ আভা সঙ্গে গঙ্গার হাওয়া। এই দুইয়ের মিশেলে মধ্যাহ্নভোজনের আগে ভারতের ভিত নাড়িয়ে দিয়েছিল নিউজিল্যান্ড পেসাররা। কিন্তু বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে পুজারা আর রাহানের দুর্ধর্ষ জুটি কিছুটা চাপমুক্ত করেছে টিম বিরাটকে।

শুক্রবার টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং-এর সিদ্ধান্ত নেন অধিনায়ক কোহলি। এবং সঙ্গে সঙ্গে দাপট দেখানো শুরু কিউই পেসারদের। এ দিন রাহুলের পরিবর্তে দলে ফেরেন শিখর ধাওয়ান। কিন্তু তাঁর ব্যাটে রানের খরা এখনও অব্যাহত। দ্বিতীয় ওভারেই হেনরির বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন তিনি। আগের ম্যাচের হিট পুজারা-বিজয় জুটি প্রাথমিক ধাক্কা সামলানোর চেষ্টায় ছিলেন। ইডেনের পিচ তখন মনে হচ্ছে পার্থ বা ডারবান। বিষাক্ত বাউন্সার দিয়ে কিউই পেসাররা তখন আগুন ছোটাচ্ছেন। ভারতের স্কোর যখন এক উইকেটে ২৮, ফেরেন বিজয়। তাঁর সংগ্রহ ৯। ওয়েস্ট ইন্ডিজে প্রথম টেস্টে দ্বিশতরান করার পর ব্যাটে সেভাবে রান নেই কোহলির। এ দিনও ব্যর্থ হয়ে ফিরে যান তিনি। তিনি করেন ৯। মধ্যাহ্নভোজে ভারতের স্কোর ছিল তিন উইকেটে ৫৭।

বিরতির পর ম্যাচে ফিরতে শুরু করে ভারত। ইনিংস এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন পুজারা আর রাহানে। পর পর তিনটে ইনিংসেই অর্ধশতরান করেন পুজারা। দুজনের মধ্যে ১৪১ রানের পার্টনারশিপ হয়। মাত্র ১৩ রানের জন্য শতরান ফস্কান পুজারা। পুজারা ফিরে যাওয়ার পর ক্রিজে আসেন রোহিত শর্মা। কিন্তু ফের ব্যর্থ হন রোহিত। শুক্রবারের পর টেস্টে তাঁর গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। ৭৭ রানে ফিরে যান রাহানে। সাত নম্বরে নামা অশ্বিনও এ দিন ব্যর্থ। দিনের শেষে ভারতের স্কোর সাত উইকেটে ২৩৯। ঋদ্ধিমান সাহার (১৪) সঙ্গে ক্রিজে রয়েছেন রবীন্দ্র জাদেজা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here