কলকাতা: আইপিএলের আগে রাহুল ত্রিপাঠীকে কত জনই বা চিনতেন। মহারাষ্ট্রের এই অনামি রঞ্জি ক্রিকেটারটিই বুধবার কেকেআরের কাছে ত্রাস হয়ে উঠলেন। তাঁর ব্যাটের দাপটে কেকেআরকে কার্যত উড়িয়ে দিল পুনে।

মাত্র ৫১ বলে রাহুলের ৯৩ রানের ইনিংসটি এ দিন সাজানো ছিল ন’টা চার এবং চারটে ছয়ে। তাঁর সামনে কেকেআরের প্রবাদপ্রতিম বোলিং লাইন আপ নাকানিচোবানি খেয়েছে। শুধু কী তা-ই, রান পাননি আগের ম্যাচে শতরানকারী বেন স্টোক্স, রান পাননি স্টিভ স্মিথ, বেশি রান করেননি ধোনি, কিন্তু তবুও জিততে অসুবিধা হয়নি পুনের।

কেকেআর বনাম পুনে ম্যাচটি সব সময় কলকাতা ‘এ’ টিম বনাম কলকাতা ‘বি’ টিম ম্যাচের আখ্যা পায়। এর মূল কারণ পুনের বাঙালি মালিক, বাংলার ছেলে মনোজ এবং বাংলার জামাই ধোনির জন্য। মনোজ তো তা-ও ঘরের ছেলে কিন্তু ধোনি নামতে ইডেন যে ভাবে তাঁকে অভিবাদন জানাল, তা দেখার মতো।

এ দিন টসে জিতে বোলিং-এর সিদ্ধান্ত নেন পুনে অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ। ম্যাচ শুরুর আগেই অবশ্য বিরাট ধাক্কা খেয়েছিল কেকেআর শিবির। চোটের জন্য বাইরে বেরিয়ে যান রবিন উথাপ্পা। উথাপ্পার অনুপস্থিতি ভালোই টের পেল কলকাতা।

গত বেশ কয়েকটি ম্যাচ ধরেই রান পাচ্ছিলেন না সুনীল নারিন। এ দিনও তাঁর ব্যাট চলেনি। ইনিংসের প্রথম ওভারে পাঁচটা ডট বল খেলে ষষ্ঠ বলে আউট হন তিনি। এক দিকে নারিনের উইকেট এবং সেই সঙ্গে উথাপ্পার অনুপস্থিতি। সব মিলিয়ে কেকেআরের ব্যাটিং-এ অকাল গ্রহণ লেগে যায়। ব্যাট চলেনি গৌতম গম্ভীরের। ইউসুফ পাঠান তো কবে রান পাবেন কোনো ঠিক নেই। একটা ম্যাচে রান পেয়ে গেলে, ফের কবে রান পাবেন সেটা তিনি হয়তো নিজেও জানেন না। সেই দিল্লি ম্যাচে মনীশ পাণ্ডেকে সঙ্গে নিয়ে দলকে জিতিয়েছিলেন, তার পর তাঁর আর কোনো উল্লেখযোগ্য অবদান নেই। যা-ই হোক প্রথম দশ ওভারে চার উইকেটে মাত্র ৫৯ তুলতে পেরেছিল কেকেআর। তবে পরবর্তী দশ ওভারে পালটে গেল কলকাতা ব্যাটিং। সৌজন্যে মনীশ পাণ্ডে এবং কলিন দে’গ্র্যান্ডহোম।

পঞ্চম উইকেটে মনীশ এবং দে’গ্র্যান্ডহোমের দুর্দান্ত পার্টনারশিপে ম্যাচের মোড় কিছুটা নিজেদের পক্ষে আনে কেকেআর। ৩২ বলে ৩৭ করেন মনীশ, কিন্তু দে’গ্র্যান্ডহোম ছিলেন আরও ভয়ঙ্কর। দু’টো ছয় এবং তিনটে চারে ১৯ বলে ৩৬ রানের ইনিংস খেলেন নিউজিল্যান্ডের এই অলরাউন্ডার। কিন্তু ইনিংসের শেষ দিকে সূর্যকুমার যাদবের ঝোড়ো ইনিংসটা না থাকলে ১৫৫-তে কিছুতেই পৌঁছতে পারত না কেকেআর। ১৬ বলে ৩০ করে অপরাজিত থাকেন সূর্য।

মাত্র কয়েকটি ম্যাচেই বদলে গেল এই দু’টো দলের ভাগ্য। এক দিকে পরপর ম্যাচ জিতে লিগ টেবিলে তিন নম্বরে উঠে কেকেআরের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছে পুনে। অন্ যদিকে পরপর দু’টো ম্যাচ হেরে কিছুটা হোঁচট খেল গম্ভীর শিবির। রবিবার আরসিবির বিরুদ্ধে ম্যাচটি জিতে, আইপিএল যাত্রাকে সঠিক ট্র্যাকে নিয়ে আসতে চাইবে কেকেআর।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here