ধর্মশালা: এক মাসের উত্তেজনাপূর্ণ টেস্ট সিরিজ শেষ। কখনও রিভিউয়ের জন্য ড্রেসিং রুমের দিকে তাকানো, কখনও চোটগ্রস্ত বিরাট কোহলির নকল করা, কখনও মুরলী বিজয়ের উদ্দেশে অশ্লীল ভাষায় গালাগাল করা, এই সব ব্যবহারের জন্য এই মুহূর্তে ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে সব থেকে অপচ্ছন্দের ব্যক্তি যদি কেউ হন, তিনি অজি অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ। কিন্তু আর দিন সাতেক পরেই শুরু হচ্ছে আইপিএল, সেখানে আবার তিনি একটি দলের অধিনায়কও। এই সব মাথায় রেখেই সম্ভবত নিজের ব্যবহারের জন্য ক্ষমা চেয়ে নিলেন স্মিথ। 

ধর্মশালায় ম্যাচ-পরবর্তী সাংবাদিক সম্মেলনে স্মিথ বলেন, “সিরিজে খুব জোর লড়াই হয়েছে দুই দেশের মধ্যে। মাঝেমধ্যে নিজের আবেগের ওপর  নিয়ন্ত্রণ রাখতে পারিনি। আমি তার জন্য দুঃখিত, সে কারণে আমি সবার কাছে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি।”

ব্যাটসম্যান হিসেবে দুর্দান্ত সিরিজ গেল স্মিথের। তিনটে শতরান-সহ ৪৯৯ রান করেছেন তিনি। কিন্তু মাঠে তাঁর ব্যবহার ছিল খুবই দৃষ্টিকটু। বেঙ্গালুরু টেস্টে দু’দেশের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হওয়ার পর দু’দেশের ক্রিকেট বোর্ডের ডাকে রাঁচি টেস্টের আগে একটি শান্তি বৈঠক হয় কোহলি এবং স্মিথের মধ্যে। কিন্তু তাতেও আদৌ কোনো সুফল যে মেলেনি তা প্রমাণিত হয় তৃতীয় টেস্টে কোহলির উদ্দেশে স্মিথের অঙ্গভঙ্গিতে। চতুর্থ টেস্টেও একই ব্যাপার। মুরলী বিজয়ের উদ্দেশে ড্রেসিংরুম থেকেই অশ্লীল কথা বলেন তিনি। কিন্তু ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে নিজের ভাবমূর্তি যে বদল করা দরকার, তা ভালোই জানেন তিনি। 

তৃতীয় দিনে ভারতের বোলিং যে ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছে, তা স্বীকার করে স্মিথ বলেন, “তৃতীয় দিন ভারত দুর্দান্ত বল করেছে। উমেশ যাদবের বিশেষ কৃতিত্ব প্রাপ্য।” এখন প্রশ্ন উঠছে, আইপিএলে পুনে দলের অধিনায়ক যদি না হতেন তা হলে স্মিথ কি এ রকম ভাবে ক্ষমা চাইতেন?

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন