ভারত, পাকিস্তান দু’দেশের হয়েই খেলেছেন যে তিন ক্রিকেটার

0
1005

ওয়েবডেস্ক: ভারত এবং পাকিস্তানের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ কবে শুরু হবে, আদৌ কোনোদিন শুরু হবে কি না, সে ব্যাপারে অনিশ্চয়তা কাটেনি। সেই টানাপড়েনের মধ্যেই মিনি বিশ্বকাপের ফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে চিরশত্রু এই দুই দেশ। তবে দুটি দেশ চিরশত্রু হলেও, এমন ক্রিকেটারও ছিলেন যাঁরা ‘নিজের’ দেশ এবং ‘শত্রু’ দেশের হয়েও খেলেছেন। নীচের তালিকায় তাঁদের নাম দেওয়া হল।

১) গুল মহম্মদ

ভারতের কাছে অসম্ভব গুরুত্বের ১৯৪৭ সালটি। একদিকে যেমন দুশো বছরের সংগ্রাম শেষে স্বাধীনতার আলো দেখেছে ভারত, তেমনই তার মাস ছয়েক আগে ভারতীয় ক্রিকেটের ইতিহাসে ঘটে গিয়েছে অত্যন্ত উল্লেখযোগ্য একটি ঘটনা।

রঞ্জি ট্রফির ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছে মধ্য ভারতের দুই কিংবদন্তি দল হোলকর এবং বরোদা। বরোদার হয়ে নেমেছেন গুল। কিন্তু বিজয় হাজারে, হেমু অধিকারী এবং বরোদার মহারাজা যে দলে রয়েছেন সেখানে গুলকে নিয়ে বিপক্ষ কোনো ভাবনাচিন্তা করেনি। কিন্তু ম্যাচে রীতিমতো তাণ্ডব চালিয়ে যান গুল। তিন উইকেটে ৯১, এই অবস্থায় ব্যাট হাতে নামেন তিনি। টানা ন’ঘন্টা ব্যাট করেন। তাঁর ব্যাট থেকে বেরোয় ৩১৯। অপর প্রান্তে ছিলেন বিজয় হাজারে। তিনি করেন ২৮৮।

অবশ্য তার এক বছর আগে, অর্থাৎ ১৯৪৬-এ ভারতীয় দলে ডাক পান এই বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে পাঁচটি টেস্ট-সহ মোট আটটি টেস্ট খেলেন তিনি। তবে স্বাধীনতার কয়েক বছর পরে করাচিতে স্থায়ী বসবাস শুরু করেন গুল। ১৯৫৬ সালে পাকিস্তানের হয়ে নিজের কেরিয়ারের নবম টেস্টটি খেলেন তিনি। এটাই অবশ্য গুলের কেরিয়ারের শেষ টেস্ট ছিল। ১৯৫৯-এ ক্রিকেট থেকে অবসর নেন তিনি।

২) আব্দুল হাফিজ কারদার

১৯৪৬ সালে ইংল্যান্ডের মাটিতে ভারতের হয়ে নিজের টেস্ট অভিষেক ঘটান অব্দুল হাফিজ। সেই সিরিজে পাঁচটা ইনিংসে একটাও অর্ধশতরান না করলেও, অভিষেক টেস্টে তাঁর ব্যাট থেকে বেরোনো ৪৩ রানের ইনিংসটি নজর কেড়েছিল। এই সিরিজটার পরে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে রাষ্ট্রবিজ্ঞান, অর্থনীতি এবং দর্শন নিয়ে পড়াশোনা শুরু করেন তিনি।

স্বাধীনতার পর পাকিস্তানে চলে যান হাফিজ। ১৯৫২ সালে পাকিস্তানের প্রথম টেস্ট অধিনায়কের অনন্য শিরোপা ওঠে তাঁর মাথায়। উল্লেখযোগ্য ভাবে তাঁর প্রথম ম্যাচটি ছিল, তাঁর পূর্বতন দল ভারতের বিরুদ্ধে। মোট ২৩টি টেস্টে পাকিস্তানের হয়ে অধিনায়কত্ব করেন তিনি। তখনকার দিনে সব কটি টেস্ট খেলিয়ে দেশের বিরুদ্ধেই জয়ের রেকর্ড রয়েছে অধিনায়ক হাফিজের। ১৯৫৭ সালে ক্রিকেট থেকে অবসর নেন তিনি।

৩) আমির ইলাহি

১৯৪৭-এ ভারতের হয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টেস্ট অভিষেক ঘটান আমির। এরপর আরও পাঁচটি টেস্ট খেলেছেন তিনি। কিন্তু সেই পাঁচটিই পাকিস্তানের হয়ে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সে ভাবে ছাপ না ফেললেও, ঈর্ষা করার মতো রেকর্ড ছিল প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে। সেখানে ১১৯ ম্যাচে ৫০৬টি উইকেট নেন তিনি।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here