সর্বকালের সেরা স্প্রিন্টার। এমন কোনও দৌড় প্রতিযোগিতা পৃথিবীতে হয় না, যাতে জিতলে এই তকমা পাওয়া যায়। কিন্তু উসেইন বোল্ট যা করলেন, তাতে এই পরিচয়েই তাঁকে মনে রাখতে বাধ্য দুনিয়া। টানা তিন বার অলিম্পিকে ১০০ মিটারে সোনা জয় আগে কখনও হয়নি।

যদিও সোমবার বোল্ট সময় নিয়েছেন ৯.৮১ সেকেন্ড, যা তাঁর ২০০৯ সালের বিশ্বরেকর্ড (৯.৫৮)-এর থেকে অনেক বেশি। তাতে আর কী, রুপোজয়ী মার্কিন স্প্রিন্টার জাস্টিন গ্যাটলিন (৯.৮৯ সেকেন্ড) ও ব্রোঞ্জজয়ী কানাডার অ্যান্ডে ডে গ্রাসে (৯.৯১) তাঁর থেকে পেছনেই থেকে যেতে বাধ্য হলেন।

২০০ মিটার এবং দলের হয়ে ৪x১০০ মিটার রিলেতে সোনা জিতলেই ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডে টানা তিন বার তিনটে সোনা জয়ের বিরলতম কৃতিত্ব স্পর্শ  করবেন বোল্ট।

এ বারের গেমসের শেষ দিনে ৩০ বছর পূর্ণ হবে তাঁর। এটাই তাঁর শেষ অলিম্পিক, সে কথা বার বার বলে রেখেছেন বোল্ট। আগামী বছর লন্ডনে বিশ্ব ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ড থেকেই অবসর নিতে চান তিনি। এখন তাঁর একমাত্র লক্ষ্য ২০০ মিটারে ১৯ সেকেন্ডের কম সময় করা। ২০০ মিটারে বিশ্ব রেকর্ডও তাঁরই দখলে রয়েছে (১৯.১৯ সেকেন্ড)। কী হবে তিনি যদি আরও দু’টো সোনা পেয়ে যান ? বোল্টের কথায়, “কেউ এক জন বলেছেন, আমি অমর হতে পারি। আর দু’টো পদক বাকি, সেটা হলেই অমর হয়ে শেষ করতে পারব আমি।”

এমন দিন খুব কমই আসে, যখন বোল্টের এমন পারফরম্যান্সকেও ছাপিয়ে যান কেউ। রবিবারের রিও-র রাতটা ছিল তেমনই। দক্ষিণ আফ্রিকার ওয়াডে ভ্যান নিয়েকের্ক ৪০০ মিটারে বিশ্বরেকর্ড করে সোনা জিতলেন। সময় করলেন ৪৩.০৩ সেকেন্ড। ভাঙলেন মাইকেল জনসনের ১৭ বছরের পুরনো রেকর্ড। মাইকেল জনসনের সময় ছিল ৪৩.১৮।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here