মুম্বই: বিরাট কোহলি কি আদৌ এই গ্রহের মানুষ। অধিনায়ক হিসেবে পৃথিবীর আর কোনো ব্যাটসম্যানকে এত চাপহীন ভাবে খেলতে দেখা যায়নি, বিরাট যা করে চলেছেন। এই ফর্ম চলতে থাকলে কোহলির সামনে কি সচিনের রেকর্ড সুরক্ষিত, এই চর্চা শুরু হল বলে।

ছোটোখাটো রেকর্ড ভাঙা তো ক্রিকেটে আকছারই ঘটে থাকে। কিন্তু এ দিন প্রথম তিন ঘণ্টার মধ্যেই মহাগুরুত্বপূর্ণ তিনটে রেকর্ড ভাঙল ভারত। প্রথম রেকর্ড অবশ্যই কোহলির। এক বছরে তিনটে দ্বিশতরান করা প্রথম ভারতীয় ক্রিকেটার হলেন বিরাট। এই তালিকায় বিরাট ছাড়া রয়েছেন মাত্র চার জন — ব্র্যাডম্যান, পন্টিং, মাইকেল ক্লার্ক আর ব্রেন্ডন ম্যাককালাম। দ্বিতীয় রেকর্ডটি করলেন জয়ন্ত যাদব। ন’নম্বর ব্যাটসম্যান হিসেবে শতরানকারী প্রথম ভারতীয় হলেন জয়ন্ত। অবশ্য বিশাখাপত্তনমে অভিষেক থেকেই তাঁকে যথেষ্ট উচ্চমানের ব্যাটসম্যান মনে হয়েছে। তৃতীয় রেকর্ডটি করেছেন বিরাট আর জয়ন্ত এক সঙ্গে। টেস্টে এই প্রথম অষ্টম উইকেটে দ্বিশতরানের জুটি হল। বিরাটের ২৩৫ আর জয়ন্তের ১০৪-এ ভর করে ৬৩১-এ শেষ হল ভারতীয় ইনিংস। তৃতীয় দিন যে ভারতকে এক সময় মনে হচ্ছিল ইংল্যান্ডের থেকে পিছিয়ে থেকেই প্রথম ইনিংস শেষ করবে, আদতে ২৩১ রানে এগিয়ে থাকল।

ইংল্যান্ডের ব্যাটিং-এও চমকপ্রদ কিছু নজরে পড়েনি। ইনিংস হার এড়ানোর জন্য লড়লেও, চতুর্থ দিনের শেষে সেই ইনিংস হারের ভ্রূকুটি তাদের ঘাড়ে চেপে বসেছে। একমাত্র রুট (৭৭) আর বেয়ারস্টো (অপরাজিত ৫০) ছাড়া কেউ ভারতীয় বোলারদের সামনে দাঁড়াতে পারেনি। ছয় উইকেট খুইয়ে ইংল্যান্ডের স্কোর এখন ১৮২। দু’টি করে উইকেট নিয়েছেন জাদেজা আর অশ্বিন। একটি করে উইকেট পেয়েছেন ভুবনেশ্বর আর জয়ন্ত।

ম্যাচের যা পরিস্থিতি তাতে পঞ্চম দিনে লাঞ্চের আগেই সিরিজ জিতে যাওয়ার কথা ভারতের। তবে আত্মতুষ্টি যেন গ্রাস না করে সে ব্যাপারেও লক্ষ রাখতে হবে। কারণ ঠিক এমনই জায়গা থেকে এগারো বছর আগে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে একটি টেস্ট হাতছাড়া করেছিল সৌরভের ভারত।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here