নয়াদিল্লি: ভারতীয় ক্রিকেট দলের হেডকোচ পদের জন্য পাঁচজনের আবেদন জমা পড়েছে বিসিসিআই-তে। আবেদন জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ছিল গত বুধবার। বীরেন্দ্র শেহওয়াগেরও আবেদন পেয়েছে বিসিসিআই।

যে পাঁচজনের আবেদন জমা পড়েছে, তার মধ্যে তিন জন ভারতীয়। বীরেন্দ্র শেহওয়াগ ছাড়াও আবেদন করেছেন প্রাক্তন ক্রিকেটার লালচাঁদ রাজপুত। এছাড়া বর্তমান হেডকোচ অনিল কুম্বলে আবেদন ছাড়াই থাকবেন লড়াইতে।

বাকি দু’জনের মধ্যে একজন সম্ভবত প্রাক্তন অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার টম মুডি। মুডি এর আগে শ্রীলঙ্কা দলকে কোচিং করেছেন। ভারতীয় দলের জন্য এর আগেও আবেদন করেছিলেন তিনি। অন্যজন ইংল্যান্ডের রিচার্ড পাইবাস। পাকিস্তানের প্রাক্তন কোচ পাইবাস বর্তমানে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের সঙ্গে যুক্ত।

কোচ হিসেবে কুম্বলে ব্যাপক সাফল্য পেলেও বেতন নিয়ে দরদস্তুর করে সম্প্রতি বিসিসিআই-এর বিরাগভাজন হয়েছেন কুম্বলে। তাঁর সঙ্গে অধিনাক কোহলির খারাপ সম্পর্কও তৈরি করেছে বিতর্ক। চ্যাম্পিয়নস ট্রফির পরই কুম্বলের সঙ্গে বিসিসিআই-এর চুক্তি শেষ হয়ে যাচ্ছে। এই অবস্থায় ২৫মে বোর্ড নতুন করে কোচের পদে আবেদন চেয়ে বিজ্ঞাপন দেওয়ায় ভুরু কোঁচকায় অনেকেরই।

শেহওয়াগ এর আগে বলেছিলেন তিনি আবেদন করেননি। তবু বিসিসিআই-এর উপরমহল থেকে কিছু কর্তা তাঁর নাম সামনে নিয়ে আসেন। শোনা গেছে সম্প্রতি কমিটি অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটরস-এর সঙ্গে একটি বৈঠকে শেহওয়াগের নাম নিয়ে বিতর্ক হয়। প্রশাসকদের কেউ কেউ শেহওয়াগের নাম ঢোকানোর প্রতিবাদ করেন। শেহওয়াগের ‘দেশপ্রেমিক’ ইমেজের জন্যই তাঁকে ভারতীয় দলের কোচ করার চাপ রয়েছে বলে বিশেষ সূত্রের খবর।

অন্যদিকে ২০০৭ সালে টি টুয়েন্টি বিশ্বকাপজয়ী ভারতীয় দলের কোচ ছিলেন লালচাঁদ রাজপুত। দীর্ঘদিন ধরেই তিনি জাতীয় স্তরে কোচিং-এর সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন