ছোট ক্রিকেট বড় ধামাকা

0

খবর অনলাইন ডেস্ক : মঙ্গলবার নাগপুরে বিকেল তিনটেয় জিম্বাবোয়ে আর হংকং মুখোমুখি হতেই ঢাকে কাঠি পড়বে ক্রিকেটের নবীনতম ফরম্যাটের বিশ্বকাপের ষষ্ট সংস্করণে। ১৩ মার্চ পর্যন্ত চলবে যোগ্যতাঅর্জনকারী বাছাই পর্ব। এই পর্বে দু’টো গ্রুপে ভাগ করে বাংলাদেশ আর জিম্বাবোয়ে ছাড়াও খেলবে হংকং, স্কটল্যান্ড, আফগানিস্তান, আয়ারল্যান্ড, হল্যান্ড আর ওমান। দু’টো গ্রুপ থেকে একটি করে শ্রেষ্ঠ দল যোগ্যতা অর্জন করবে পরের রাউন্ডে, যেখানে অপেক্ষা করবে ভারত, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, দক্ষিণ আফ্রিকা, ইংল্যান্ড আর ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আগামী ১৫ মার্চ নাগপুরে ভারত আর নিউজিল্যান্ডের ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে টি-২০ বিশ্বকাপের মূল পর্ব।
মূল পর্বেও দু’টো গ্রুপে ভাগ করে খেলবে ৫টি করে দল। তুলনামূলক ভাবে শক্ত গ্রুপে পড়েছে ভারত। নিউজিল্যান্ড ছাড়াও গ্রুপসঙ্গী অস্ট্রেলিয়া, পাকিস্তান আর যোগ্যতাঅর্জনকারী একটি দল, যেটি খুব সম্ভবত বাংলাদেশই হবে। অপর গ্রুপে রয়েছে শ্রীলঙ্কা, দক্ষিণ আফ্রিকা, ইংল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ আর যোগ্যতাঅর্জনকারী অন্য একটি দল, যেটি সম্ভবত জিম্বাবোয়ে হবে। দেশের সাতটি শহরে অনুষ্ঠিত হবে বিশ্বকাপের ম্যাচগুলি। শহরগুলি হল রাজধানী দিল্লি, ধরমশালা, নাগপুর, মুম্বই, বেঙ্গালুরু, মোহালি আর কলকাতা। ১৯৮৭-র পর আবার বড় কোনও টুর্নামেন্টের ফাইনাল হবে ইডেন গার্ডেন্সে।
বিশ্বকাপের হাইভোল্টেজ খেলা আগামী ১৯-এ মার্চ, যে দিন মুখোমুখি হতে চলেছে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত আর পাকিস্তান। আপাতত ধরমশালায় ম্যাচটি হওয়ার কথা ঠিক থাকলেও, এই নিয়ে দুই দেশের রাজনৈতিক চাপানউতোর তুঙ্গে। হিমাচলের মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, এই ম্যাচের জন্য বিপুল নিরাপত্তা ব্যবস্থা করতে তার রাজ্যের পুলিশ অপারগ। মুখ্যমন্ত্রীর এ হেন কথায় পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটার-রাজনীতিক ইমরান খান খুব ক্ষুব্ধ হয়েছেন। এই মুহূর্তে নিরাপত্তাব্যবস্থা খতিয়ে দেখতে পাকিস্তান থেকে এসেছেন দু’জনের একটি প্রতিনিধি দল। পাকিস্তান ম্যাচ ছাড়াও আগামী ২৭ তারিখ মোহালিতে মুখোমুখি হবে ভারত আর অস্ট্রেলিয়া।
কলকাতা এখন থেকেই বিশ্বকাপের জ্বরে কাবু হতে শুরু করেছে। মূল পর্বে ৩ এপ্রিলের ফাইনাল ছাড়াও তিনটে খেলা পড়েছে শহরে। তবে মূল পর্বের আগেই কয়েকটা বড় প্রস্তুতি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ইডেনে।
ইডেনে প্রস্তুতি ম্যাচের সূচি :
১০ মার্চ – ভারত বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ; ১২ মার্চ – পাকিস্তান বনাম বাংলা রঞ্জি দল, ১৩ মার্চ – অস্ট্রেলিয়া বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ আর ১৪ মার্চ -পাকিস্তান বনাম শ্রীলঙ্কা।
ইডেনে মূল পর্বের খেলা :
১৬ মার্চ – পাকিস্তান বনাম যোগ্যতাঅর্জনকারী; ১৭ মার্চ – শ্রীলঙ্কা বনাম যোগ্যতাঅর্জনকারী; ২৬ মার্চ – নিউজিল্যান্ড বনাম যোগ্যতাঅর্জনকারী।
পুরুষদের টি-২০ বিশ্বকাপের পাশাপাশি চলবে মহিলাদের টুর্নামেন্টও। ১৫ মার্চ ভারত বনাম বাংলাদেশের ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে মহিলা টি-২০ বিশ্বকাপ। ৩ এপ্রিল ইডেনেই অনুষ্ঠিত হবে মহিলাদের বিশ্বকাপ ফাইনাল। বিকেলে মহিলাদের ফাইনাল হয়ে গেলেই সন্ধ্যায় শুরু হবে পুরুষদের ফাইনাল। এখন কলকাতা তথা সমগ্র ভারতবাসীর একটাই স্বপ্ন, ৩ এপ্রিল রাতে মহেন্দ্র সিংহ ধোনির হাতে ট্রফির পাশাপাশি যেন বিকেলে মিতালি রাজের হাতেও ট্রফি দেখা যায়।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন