অনলাইন জালিয়াতি থেকে সাবধান! গ্রাহকদের সতর্ক করল এসবিআই

0
SBI
এসবিআই। প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: দেশের বৃহত্তম রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া (SBI) ফিশিং হানার বিরুদ্ধে নিজের গ্রাহকদের সতর্ক করছে। করোনাভাইরাস মহামারির (Coronavirus pandemic) কারণে রীতিমতো গৃহবন্দি হয়ে পড়া মানুষ অনলাইন লেনদেনে নির্ভরশীল হয়ে পড়েছেন। ফলে ব্যবহারকারীর সংখ্যা বাড়ার সঙ্গেই অনলাইনে প্রতারকের সংখ্যাও পাল্লা দিয়ে বাড়ছে।

এসবিআই জানিয়েছে, এ মুহূর্তে সাত কোটি ৩৫ লক্ষ গ্রাহক ইন্টারনেট ব্যাঙ্কিং পরিষেবা ব্যবহার করছেন। অন্য দিকে ১ কোটি ৭০ লক্ষ গ্রাহক মোবাইল ব্যাঙ্কিং পরিষেবা ব্যবহার করছেন। তাঁদের উদ্দেশেই নিজের অ্যাকাউন্ট সুরক্ষিত করার ব্যবস্থা নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে এসবিআই।

এসবিআই একটি টুইটে জানিয়েছে, “ফিশারদের থেকে সাবধান! আপনি ইন্টারনেটে প্রাপ্ত সমস্ত রকমের যোগাযোগ সম্পর্কে সতর্ক থাকুন। নিরাপদে থাকার জন্য এই সাধারণ সুরক্ষা ব্যবস্থা অনুসরণ করুন”।

amazon

ফিশিং (phishing) কী?

ভুয়ো ই-মেল অথবা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে কোনো ভুক্তভোগীকে ফাঁদে ফেলে প্রতারকরা। ওই সমস্ত ক্ষেত্রে লগ-ইন করতে গিয়ে ঠিকানা, যোগাযোগ নম্বর, জন্মতারিখ ব্যবহারের ফলে ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নেয় ফিশাররা। নিজের ই-মেল অ্যাকাউন্টে আসা এ ধরনের ই-মেল অথবা ওয়েবলিঙ্কগুলি ক্লিক করার আগে সতর্ক থাকতে হবে। সেগুলি প্রকৃত, না কি ভুয়ো তা খতিয়ে দেখতে হবে।

কী করতে হবে?

১. অজানা প্রেরকের কাছ থেকে আসা কোনো ফাইলের ডাউনলোড এড়িয়ে চলতে হবে।

২. নিজের ব্যক্তিগত তথ্য কাউকে পাঠানোর আগে তার ই-মেল আইডি খতিয়ে দেখতে হবে।

৩. অ্যান্টিভাইরাস, অ্যান্টিস্পাইওয়্যার এবং ফায়ারওয়্যাল সফটওয়্যার ব্যবহার করতে হবে।

৪. নিয়মিত নিজের ওয়েব ব্রাউজারটি আপডেট করতে হবে। ফিশিং ফিল্টার সক্রিয় রাখতে হবে।

কী করবেন না?

১. সন্দেহজনক কোনো ই-মেল অথবা সোশ্যাল মিডিয়া মেসেজে প্রত্যুত্তর দেবেন না।

২. ব্যক্তিগত কাজে সংস্থার ই-মেল আইডি ব্যবহার করবেন না।

৩. ব্যাঙ্কের তথ্য জানতে চাওয়া ফোনের উত্তর দেবেন না।

৪. আচমকা কোনো পুরস্কারের সুযোগ নিতে নিজের ব্যক্তিগত তথ্য কাউকে বলবেন না।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন