ওয়েবডেস্ক: উত্তরাখণ্ড হাইকোর্টের পর্নগ্রাফিক বিষয়বস্তু রয়েছে এমন ওয়েবসাইটগুলিকে ব্লক করার রায়কে বহাল রাখতে নির্দেশিকা জারি করল কেন্দ্রীয় বৈদ্যুতিন এবং তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রক। তবে হাইকোর্ট যেখানে রায়ে বলেছিল, এই ধরনের ৮৫৭টি ওয়েবসাইটকে ব্লক করার কথাস সেখানে মন্ত্রকের তরফে ছাড় দেওয়া হল ৩০টি ওয়েবসাইটকে।

ডিপার্টমেন্ট অব টেলিকম (ডট)-কে পাঠানো তালিকায় মন্ত্রক জানিয়েছে, পর্ন বিষয়বস্তু রয়েছে এমন ৮২৭টি ওয়েবসাইটকে নিষিদ্ধ করতে হবে। এ ব্যাপারে ওই ওয়েবসাইটিগুলির পূর্ণাঙ্গ তালিকাও তুলে দেওয়া হয়েছে ডটের হাতে। বলা হয়েছে, বিভিন্ন ইন্টারনেট পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থাগুলিকে জরুরি ভিত্তিতে নির্দেশিকা পাঠাতে হবে।

অবশ্য, উত্তরাখণ্ড হাইকোর্টের রায়ে মোট ৮৫৭টি ওয়েবসাইটের কথা উল্লেখ করা হয়েছিল। মন্ত্রক জানায়, হাইকোর্টের উল্লেখিত ওয়েবসাইটগুলিকে যথাযথ ভাবে পরীক্ষা করার পর দেখা গিয়েছে, সেগুলির মধ্যে ৩০টি-তে কোনো রকমের আপত্তিকর বিষয়বস্তু খুঁজে পাওয়া যায়নি।

মন্ত্রকের নির্দেশ পাওয়ার পর ডট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, ডটের লাইসেন্সপ্রাপ্ত সমস্ত ইন্টারনেট পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থাকে জানানো হয়েছে, জরুরি ভিত্তিতে ওই ৮২৭টি ওয়েবসাইট ব্লক করার নির্দেশ পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে উত্তরাখণ্ড হাইকোর্টের রায় এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রকের নির্দেশকে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে যাবতীয় পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

‌উল্লেখ্য, গত ২৭ সেপ্টেম্বর উত্তরাখণ্ড এই রায় দেয়। সেই রায়ের প্রতিলিপি মন্ত্রক হাতে পায় গত ৮ অক্টোবর। তবে মন্ত্রক দাবি করেছে, গত ৩১ জুলাই, ২০১৫-এর ডটের একটি পুরনো নোটিশেও ওই ওয়েবসাইটগুলিকে নিষিদ্ধ করার কথা উল্লেখ করা হয়েছিল। কিন্তু সে সময় ওই ওয়েবসাইটগুলিতে কোনো চাইল্ড পর্নোগ্রাফিক না থাকায় ওই বছরের ৪ আগস্ট সেই নোটিশ প্রত্যাহার করা হয়।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন