নয়াদিল্লি: এক দিকে প্রযুক্তির অগ্রগতি। অন্য দিকে, বেড়ে চলা সাইবার অপরাধের (Cyber crime) ঘটনা। যা সারা দেশে একটি অন্যতম সমস্যা হিসাবে আবির্ভূত হয়েছে।

২০১৭ সালের তুলনায় সাইবার অপরাধের ঘটনা এখন বেড়ে দ্বিগুণ। কিন্তু বেশ কিছু রাজ্যেই অনলাইন জালিয়াতি (online fraud) মোকাবিলায় পর্যাপ্ত পরিকাঠামোর অভাব স্পষ্ট।

চ্যালেঞ্জ অনেক বিস্তৃত

এই ধরনের অপরাধগুলি ভৌগলিক সীমানা অতিক্রম করে। যে কারণে অপরাধীদের ট্র্যাক করা কঠিন হয়ে ওঠে। প্রতারকদের নিশানা সকলেই। তবে অসচেতনরাই তাদের ফাঁদে পা দিয়ে ফেলে সহজেই। প্রতারণা করার জন্য নিত্যনতুন উপায়ও উদ্ভাবন করে চলেছে প্রতারকরা। এ সবই পুলিশের জন্যও একটি বড়ো চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

যে ভাবে বেড়েছে সাইবার অপরাধ‌‌

সরকারি তথ্য সাইবার ক্রাইমের ক্রমবর্ধমান প্রবণতার উল্লেখ করেছে। এনসিআরবি তথ্য অনুযায়ী, ২০১৮ সালে এ ধরনের নথিভুক্ত অপরাধের সংখ্যা ছিল ২১ হাজার ৭৯৬টি। সেটাই ২০২০ সালে বেড়ে হয় ৫০ হাজার ৩৫টি।

স্বরাষ্ট্র বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির পর্যবেক্ষণ বলছে, অপরাধীরা কী ধরেনর নতুন পদ্ধতি অবলম্বন করছে এবং প্রযুক্তিগত আপডেট সম্পর্কে ওয়াকিবহাল থাকা উচিত পুলিশের। ক্রমবর্ধমান প্রবণতা নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে কমিটি বলেছে, ক্রমশ বেড়ে চলা বিপদ মোকাবিলায় কেন্দ্রীয় ও রাজ্য, উভয় সরকারের এক সঙ্গে কাজ করা দরকার।

পর্যাপ্ত পরিকাঠামোর অভাব

সাইবার অপরাধের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য অনেক রাজ্যে পর্যাপ্ত পরিকাঠামোর অভাব রয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে রিপোর্টে। এতে বলা হয়েছে, পঞ্জাব, রাজস্থান, গোয়া, অসমে একটি সাইবার ক্রাইম সেলও নেই, যেখানে অন্ধ্রপ্রদেশ, কর্নাটক এবং উত্তরপ্রদেশে মাত্র একটি বা দুটি করে রয়েছে।

এমনটাও দাবি করা হয়েছে, সাইবার অপরাধ মোকাবিলা করার জন্য পুলিশকর্মীদের ঐতিহ্যগত প্রশিক্ষণ যথেষ্ট নয়। কারণ, এই অপরাধীরা প্রযুক্তি-সচেতন এবং নিয়মিত ভাবে নতুন পদ্ধতি অনুসরণ করছে।

এ ব্যাপারে কমিটির সুপারিশ, বিভিন্ন রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে সাইবার প্রশিক্ষণ ল্যাব স্থাপনের জন্য পর্যাপ্ত তহবিল বরাদ্দ করতে পারে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। যাতে পুলিশকর্মীদের আধুনিক প্রশিক্ষণ এবং বর্তমান পরিকাঠামোর ভোলবদল সম্ভব হতে পারে।

আরও পড়তে পারেন: 

ডিএ, স্বচ্ছ নিয়োগের দাবিতে ২৯টি সরকারি কর্মচারী সংগঠনের মিছিল

ঝাড়খণ্ড সংকট! বিধায়কদের নিরাপদ আস্তানায় পাঠিয়ে দিল জেএমএম-কংগ্রেস

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন