ওয়েবডেস্ক : ট্রিলজির শেষ ‘সুপারমুন’ হতে চলেছে চলতির মাসের শেষ দিনটিতে। অর্থাৎ জানুয়ারির ৩১ তারিখে। ওই দিন এই মাসের যেমন দ্বিতীয় পূর্ণিমা অর্থাৎ ‘ব্লু মুন’। তেমনই পরপর তিনটি ‘সুপারমুন’-এর শেষটিও বটে। আবার একই সঙ্গে পূর্ণগ্রাস চন্দ্র গ্রহণও। একই সঙ্গে অনেকগুলি মহাজাগতিক ঘটনা ঘটবে এই দিন।

ব্লুমুন হল একই মাসে দু’ দু’টি বার পূর্ণিমার চাঁদ দেখতে পাওয়া। এই ঘটনা সাধারণত আড়াই বছর পর পর ঘটে।

নাসা জানিয়েছে, এ বারের ‘সুপারমুন’ অন্যবারের থেকে প্রায় ১৪% বড়ো দেখাবে। সঙ্গে ৭৭ মিনিটের পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ দেখার সুযোগ রয়েছে। এমন ঘটনা বার বার ঘটে না।

এর আগে এই সিরিজের প্রথম ‘সুপারমুন’ হয়েছিল ২০১৭ সালের ৩ ডিসেম্বর। তার পরেরটা এই বছরের ১ জানুয়ারি। আগের দু’টিই যাঁদের দেখা হয়নি তাঁরা এ বারটা দেখে পারেন।

তবে দুঃখের বিষয় ভারত থেকে ‘সুপারমুন’ দেখা গেলেও কিন্তু দেখা যাবে না চন্দ্রগ্রহণ। তাই ‘ব্লুমুন’ আর ‘সুপার মুন’-এই শান্ত থাকতে হবে।

আরও পড়ুন : ‘ব্লু মুন’ এবং পূর্ণগ্রাস চন্দ্র গ্রহণের সমাপতন, দেড়শ বছরে এই প্রথম ঘটতে চলেছে এই মাসেই

ওয়াশিংটনের নাসার মূল কার্যালয়ের প্রোগ্রাম এক্সিকিউটিভ ও লুনার ব্লগার গর্ডন জনস্টোন বলেন, বিশেষ একটা কৌণিক দূরত্বে চাঁদ আর পৃথিবীর অবস্থান আর সেই সময় পৃথিবীর ছায়া চাঁদের ওপর পরে এই পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ আর সুপারমুন দেখা যাবে। গোটা ঘটনাটি দেখতে পাবেন উত্তর আমেরিকা, পূর্ব এশিয়ায়। যাঁরা আলাস্কা বা হাওয়াই-এ থাকেন তাঁরা ৩১ জানুয়ারির সূর্যোদয়ের আগে ঘটনাটি দেখতে পাবেন।  মিডিল ইস্ট, এশিয়া, পূর্ব রাশিয়া, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড ঘটনাটি দেখতে পাবেন চাঁদ ওঠার সময়।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন