সাবধান! গুগল প্লে স্টোরে ঢুকে পড়েছে জইশ-ই-মহম্মদের এই মোবাইল অ্যাপ

0
অ্যাপে জইশ-যোগ! প্রতীকী সংগৃহীত ছবি

গুগল প্লে স্টোরে এখনও সক্রিয় এই অ্যাপ! ইনস্টল করলেই বিপদ।

নয়াদিল্লি: অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরা সাবধান! পাকিস্তান-ভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত একটি মোবাইল অ্যাপ এখন গুগল প্লে স্টোরে।

সর্বশেষ পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, ওই অ্যাপটি এখনও গুগল প্লে স্টোরে অ্যাকটিভ রয়েছে। ইন্ডিয়া টুডে-র রিপোর্ট অনুযায়ী, ওই অ্যাপের নাম ‘আছি বাতেঁ’। মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনটি একটি ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম, যেখানে ইসলামি শিক্ষা দেওয়া হয়। তবে ওই জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে অ্যাপের কোনো সম্পর্ক রয়েছে বলে স্বীকার করে না প্ল্যাটফর্মটি।

অ্যাপে জইশ-যোগ

তবে আশ্চর্যজনক ভাবে অ্যাপটির ডেভেলপার পেজটি জইশ প্রধান মৌলানা মাসুদ আজহারের সঙ্গে সম্পর্কিত সামগ্রী ও বিষয়গুলোর প্রচার করে।

Shyamsundar

এতে রয়েছে এক্সটারন্যাল ওয়েব পেজের লিঙ্ক। যা মাসুদ আজহার এবং তার সহযোগীদের বই, সাহিত্য এবং অডিও বার্তাগুলি প্রচার করে। অ্যাপটিতে রয়েছে দু’টি এক্সটারন্যাল ওয়েব পেজের লিঙ্ক। একটিতে রয়েছে, ২০০১ থেকে ২০১৯ সালে মাসুদ আজহারের বক্তৃতার অডিও। অন্য লিঙ্কটিতে রয়েছে মাসুদ আজহারের লেখা বেশ কয়েকটি বইয়ের লিঙ্ক।

সংবাদ মাধ্যমটির প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণে দেখা গিয়েছে, অ্যাপটি জার্মানির একটি সার্ভারে যুক্ত রয়েছে। জার্মানি-ভিত্তিক কনটাবো ডেটা সেন্টারের সার্ভারের সঙ্গে সংযুক্ত রয়েছে অ্যাপটি। দাবি করা হয়েছে, ওই অ্যাপটি ডাউনলোড করার সময় অনেকগুলো ‘অনুমতি’ চায়। যা সাধারণত অন্য অ্যাপের থেকে আলাদা। অন্য অ্যাপগুলোতে সচরাচর বিশেষ কার্যকারিতার জন্য অনুমতি চাওয়া হয়, এ ক্ষেত্রে তার ধরন অনেকটাই পৃথক।

ইনস্টল করলেই বিপদ!

এটা কতকটা চিনের ইউসি ব্রাউজারের মতো। ইউসি-কে আগেই নিষিদ্ধ করেছে ভারত সরকার। এই ধরনের অ্যাপ প্রথম বার ইনস্টল করার পরে কন্টেনারে বিভিন্ন ক্লাস চালাতে পারে। একবার ইনস্টল হয়ে গেলে, অ্যাপটি মোবাইল ডিভাইসের নেটওয়ার্ক এবং জিপিএস (যখন অ্যাকটিভ থাকে) অ্যাক্সেস করতে পারে।

অর্থাৎ, ব্যবহারকারী এক বার নিজের ডিভাইস চালু করলে অ্যাপটি স্বয়ংক্রিয় ভাবে শুরু হতে পারে, এমনকী ব্যাকগ্রাউন্ডেও চলতে থাকে। যা ফোনের আনুমানিক এবং সুনির্দিষ্ট অবস্থান, নেটওয়ার্ক, স্টোরেজ, মিডিয়া এবং অন্যান্য ফাইলগুলিকে অ্যাক্সেস করে।

তথ্যপ্রযুক্তি বিশ্লেষকরা বলছেন, এ ধরনের অ্যাপ যদি আপনার নজরে আসে, তা হলে অবিলম্বে সে বিষয়ে গুগলের কাছে রিপোর্ট করুন। অ্যাপটি সরিয়ে দেওয়া হয়েছে কি না, সে ব্যাপারেও ব্যবহারকারীকে পরবর্তীতে জানিয়ে দেবে গুগল।

আজকের আরও কিছু উল্লেখযোগ্য খবর পড়তে পারেন এখানে: 

বড়োসড়ো স্বস্তি! যাত্রী পরিবহণে নিষেধাজ্ঞা থাকছে না ঘরোয়া উড়ানে, জানিয়ে দিল কেন্দ্র

আইনজীবীদের জন্য ‘স্মার্ট কার্ড’ চালু করা উচিত, বলল দিল্লি হাইকোর্ট   

কংগ্রেসে যোগ দিচ্ছেন বরুণ গান্ধী! জল্পনার মাঝেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল পোস্টার

উৎসবের মাঝে সুখবর! ২-১৮ বছর বয়সিদের জন্য কোভ্যাকসিনে ছাড়পত্র

দৈনিক সংক্রমণ নামল ১৫ হাজারের নীচে, ২২৪ দিনের মধ্যে সব থেকে কম

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন