কী কাণ্ড! অনলাইনে প্রেম করতেও ভ্যাকসিন? ডেটিং অ্যাপের নতুন মাপকাঠি

0

খবর অনলাইন ডেস্ক: ডেটিং অ্যাপ (Dating App) আগের তুলনায় এখন আরও জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। শুধু বর্তমান কোভিড পরিস্থিতিই নয়, এর আগেও বিশ্ব জুড়ে অনলাইন ডেটিংয়ের রমরমা ছিল।

প্রথম দিকে দেখা গিয়েছিল, কারও চোখের দিকে তাকিয়ে মনের খিদে মেটানো, নিজেদের মনের কথা ভাগ করে নেওয়া অথবা দুর্দান্ত কিছু হাস্যরসাত্মক আলাপচারিতায় উপচে পড়ছে অনলাইন প্রেম। কিন্তু এখন একটি নতুন এবং গুরুত্বপূর্ণ ‘মাপকাঠি’ যুক্ত হয়েছে অনলাইন ডেটিংয়ে।

Loading videos...

ভ্যাকসিন স্ট্যাটাস

‘টিন্ডার’, ‘বাম্বল’, ‘ওকে কিউপিড’-এর মতো জনপ্রিয় ডেটিং অ্যাপের মাধ্যমে সংগৃহীত তথ্য অনুযায়ী, একটা বড়ো অংশের ব্যবহারকারী এমনটাও জানাচ্ছেন, তাঁরা কোভিড-১৯ টিকা নিয়েছেন। সঙ্গে নিজের ভবিষ্যতের সঙ্গীকে ভ্যাকসিন উপহার দেওয়ার আশা প্রকাশ করতেও ছাড়ছেন না অনেকে।

গার্ডিয়ান-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, ‘এলেট ডেট’ নামে একটি অ্যাপ ‘ভ্যাকসিন স্ট্যাটাস’কে পৃথক ‘মাপকাঠি’ হিসাবে যুক্ত করেছে। যাতে এর ভিত্তিতে টিকা নেওয়া ব্যবহারকারীদের সহজে বেছে নেওয়া যায়।

নিজের মতো কাউকে বেছে নেওয়ার জন্য ব্যবহারকারীরা সেখানে ‘ভ্যাকসিনেশন’, ‘শটস’ ইত্যাদির মতো শব্দগুলি ব্যবহার করছেন। আবার যাঁরা ভ্যাকসিন নিতে আগ্রহী নন, অনলাইন ডেটিংয়ে তাঁদের প্রত্যাখ্যান করার মতোও ঘটনা ধরা পড়েছে।

বাড়তি আগ্রহের কারণ

ওকে কিউপিড-এর মুখপাত্র মাইকেল কায়ে বলেছেন, এখন অনলাইন ডেটিং অ্যাপ ব্যবহারকারীদের কাছে সব থেকে গরমাগরম ব্যাপার হল টিকাকরণ। তিনি দাবি করেছেন, যাঁরা টিকা নিয়েছেন, তাঁরা খুব দ্রুত নিজের ‘পছন্দ’ বেছে নিতে পারছেন।

এলেট ডেট-এর প্রতিষ্ঠাতা সঞ্জয় পঞ্চাল সংবাদ সংস্থাটিকে বলেছেন, “আপনি যদি জানিয়ে দেন, নিজে টিকা নিয়েছেন, তা ব্যাপারটা কিছুটা নমনীয় হয়ে উঠছে। আমাদের গবেষণায় দেখা গিয়েছে, টিকা নেওয়ার বিরুদ্ধে থাকা কাউকে বেছে নিতে আপত্তি জানাচ্ছেন ৬০ শতাংশের বেশি ব্যবহারকারী”।

সংশ্লিষ্ট মহলের দাবি, এ ধরনের ডেটিং অ্যাপগুলি সর্বতো ভাবে ব্যবহারকারীদের সুরক্ষা দিয়ে থাকে। স্বাভাবিক ভাবেই কোনো ব্যবহারকারী যদি টিকা নিয়ে থাকেন, তা হলে তিনি যে অন্যের কাছে বাড়তি আগ্রহের কারণ হয়ে উঠবেন, তাতে অবাক হওয়ার কিছু নেই। এ ধরনের কিছু অ্যাপ আবার ভিডিও কলের সুবিধাও দিচ্ছে।

আরও পড়তে পারেন: ডেটিং অ্যাপ ব্যবহারে সাবধান! কয়েক লক্ষ ছবি, চ্যাট-সহ ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.