Smartphone
প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: ট্রু কলার এমন একটি মোবাইল অ্যাপ যা ব্যবহার করে ‘কল’ করা ব্যক্তির পরিচয় জানা যেতে পারে। অবাঞ্ছিত কল সম্পর্কে জানার আগ্রহেই এ ধরনের অ্যাপ স্মার্টফোনে ডাউনলোড করে থাকেন অনেকে। কিন্তু এ বার ট্র কলার নিয়ে সাবধানবাণী শোনাচ্ছে একটি ‘ভয়ঙ্কর’ তথ্য!

এনট্র্যাকার নামে একটি ডিজিটাল প্লাটফর্মের তথ্য অনুযায়ী, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সাইবার সিকিরিটি বিশ্লেষকরা জানিয়েছেন, বিশ্বের অন্যান্য জায়গায় যেখানে প্রায় ২২ লক্ষ টাকায় ট্রু কলার ব্যবহারকারীদের তথ্য অন্ধকার দুনিয়ায় বিক্রি হতে পারে, সেখানে মাত্র দেড় লক্ষ টাকায় বিকোচ্ছে ভারতীয়দের তথ্য।

এনট্র্যাকারের হিসাব অনুয়ায়ী, ভারতে ট্রু কলার ব্যবহার করেন প্রায় ১৪ কোটি স্মার্টফোন ব্যবহারকারী। এঁদের মধ্যে প্রায় ৬০-৭০ শতাংশ ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য ‘লিক’ হয়েছে।

ব্যক্তিগত তথ্যের মধ্যে রয়েছে মোবাইল নম্বর-সহ ই-মেল আইডি, ঠিকানা এবং অন্যন্য তথ্য। যদিও সুইডেনের সংস্থাটি জানিয়েছে, তাদের অ্যাপ ব্যবহারকারীদের সমস্ত তথ্যই নিরাপদে সংরক্ষিত রয়েছে। তথ্য বিক্রি বা এই সংক্রান্ত কোনো ধরনের নিয়ম বহির্ভুত ঘটনা ঘটেনি। ট্রু কলার জানিয়েছে, কোনো ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত সংবেদনশীল তথ্য তারা প্রবেশ বা নিষ্কাশন করে না। বিশেষ করে আর্থিক লেনদেনের কোনো তথ্যের সঙ্গেই এই অ্যাপের কোনো সম্পর্ক নেই।

[ আধার নম্বরে পিএফ লিঙ্ক করার ৪টি সহজ পদ্ধতি ]

ট্রু কলার জানায়, যে কোনো ধরনের বেআইনি কার্যকলাপ রুখতে সংস্থা সর্বদা তৎপর। সন্দেহজনক ব্যবহারকারীদের অবিলম্বে চিহ্নিত করা হয়েছে। পাশাপাশি প্রত্যেক ব্যবহারকারীর জন্য বেঁধে দেওয়া হয়েছে এক দিনে সর্বোচ্চ বার ব্যবহারের সংখ্যাও।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here