ওয়েবডেস্ক: স্মার্টফোন কিনতে গেলে বেশ কয়েকটি বিষয়ে ভালো করে দেখেশুনে নিতে হয়। শুধু রং আর দাম নয়। রয়েছে আরও অনেকগুলি প্রয়োজনীয় বিষয়। দেখুন সেগুলি কী কী?

দাম –

প্রথমেই আসি দামের কথায়। রংচঙে বিজ্ঞাপনে ভুলে দাম দিয়ে ভুল ফোন কিনবেন না। যেই ফোন কিনবেন তার বিষয়ে বিশদে জানুন, প্রয়োজনে দাম-সহ ইত্যাদি বিষয়গুলি অনলাইনে ও একাধিক দোকান থেকে দেখে বুঝে নিয়ে তবেই দাম দিন।

১. ফিচার –

এক একটি স্মার্টফোনের ফিচার এক এক রকম হয়। কোনটি আপনার কাজের ক্ষেত্রে জরুরি সেটি দেখে নিন প্রথমেই। তার মধ্যে পড়ছে প্রসেসর, স্টোরেজ ইত্যাদি বিষয়।

আরও পড়ুন – লন্ডনের পার্কে অপরিচিতার দুই কুকুর নিয়ে হুল্লোড় জিতের, নিজেই দেখুন 

২. ব্রাইটনেস –

ফোনের ব্রাইটনেসটিও স্মার্টফোন কেনার সময় দেখে নিতে হয়। যাতে দিনের বেলায় ঘরের বাইরেও স্পষ্ট ভাবে দেখা যায় সেই রকম একটি ফোন পছন্দ করা উচিত।

৩. ডিসপ্লে –

নজর রাখতে হবে ডিসপ্লে সাইজের ওপরও। কত বড়ো স্ক্রিন সেটা নির্ভর করে এক্ষেত্রে। ৫.৮ থেকে ৬.৪ ইঞ্চির মধ্যে স্ক্রিন হলে ভালো হয়। কারণ আজকাল ফোনের মধ্যে টিভি দেখার রেওয়াজ রয়েছে। তার জন্য বড়ো স্ক্রিন উপযুক্ত।

৪. পারিপার্শ্বিক –

আজকাল ফোনের আয়তন ক্রমশ বাড়ছে। সেক্ষেত্রে তা বহন করার ক্ষেত্রে সুবিধা অসুবিধার ব্যাপারটাও একটি বড়ো কথা। যাতে করে আয়তনের জন্য লেখা বা ব্যবহার করার ক্ষেত্রে কোনো রকম সমস্যায় পড়তে না হয়, সেটিও নজর রাখতে হবে ফোন কেনার সময়।

smartphone
প্রতীকী ছবি

৫. স্টোরেজ –

স্মার্ট ফোন কিনতে হলে নজর দিতে হবে স্টোরেজে। কম করে ৩২ জিবি স্টোরেজ তো চাইই চাই। আর সম্ভব হলে ৬৪ জিবি স্টোরেজ। স্টোরেজ বেশি হলে তাতে প্রয়োজনীয় অ্যাপ, পছন্দের খেলা, প্রিয় অনেক কিছুই লোড করা যায় সময়ে কাজে লাগানোর জন্য।

৬. অপারেটিং সিস্টেম-

হয় অ্যনড্রয়েড না হয় আইওএস অপারেটিং সিস্টেমই আজকাল চলছে বেশি। তাই ফোন কিনতে হলে এই জাতীয় ফোন কেনাই বুদ্ধিমানের। এতে অনেক কিছু অ্যাপ ব্যবহারও করা যায়। ব্যবহার করা যায় গুগল, জি-মেল, ম্যাপ ইত্যাদিও।

আরও পড়ুন – এক সঙ্গে ৭টি শিশুর স্বাভাবিক জন্ম দিয়ে মধ্যপ্রাচ্যে রেকর্ড গড়লেন ইরাকি যুবতী

৭. ব্যাটারি –

ব্যাটারি তো একটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। যদি সারা দিন ফোন অন থাকুক এটাই চাওয়া হয় তাহলে অবশ্যই ভালো ব্যাটারির ফোন বাছাই করতে হবে। সঙ্গে খেয়াল রাখতে হবে যাতে দ্রুত ব্যাটারি চার্জ করা যায়।

৮. ক্যামেরা –

এখন ক্যামেরার ব্যাপারটি তো অবশ্যই মনে রাখতে হবে। কত মেগা পিক্সেলের ক্যামেরা, তাতে ছবি কেমন ওঠে? আর তার ব্রাইট নেস কেমন এই সবও কিন্তু সমান গুরুত্বপূর্ণ।

নতুন বা ব্যবহার করা ফোন কিনতে পারেন। সে ক্ষেত্রে যে বিষয়গুলি জেনে নিতে হবে-

  • কোনো রকম মেরামত করা হয়েছে কিনা?
  • এই স্মার্টফোনের কোনো ওয়ারেন্টি কার্ড আছে কিনা?
  • এই ফোনের ভালো মন্দ কোনো বিশেষ দিক আছে কিনা?
  • ফোনে কোনো সমস্যা আছে কিনা?

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here