কলকাতা : এখনই নয়, টেট পরীক্ষার তারিখ জানার জন্য অপেক্ষা করতে আরও কিছু দিন। সরকারি আর সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলিতে শিক্ষকদের জন্য মোট কত শূন্যপদ আছে? সেটা ভালো করে যাচাই করে তবেই দেওয়া হবে টেট পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পক্ষ থেকে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের দেওয়া একটি বিবৃতিতে রবিবার এ কথা জানা গিয়েছে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেছেন, এই ক্ষেত্রে প্রথমে দেখা হবে সব ক’টি স্কুলের পড়ুয়া আর শিক্ষকের সংখ্যার অনুপাত কী আছে। তার ওপরই নির্ভর করবে শূন্যপদ। সেই মতোই পরীক্ষার কথা ঘোষণা করা হবে।

যাঁরা টেট পরীক্ষায় বসতে চান তাঁদের জন্য বলে রাখা ভালো এর আগের বার ওয়েস্ট বেঙ্গল প্রাইমারি এডুকেশন বোর্ড (ডব্লিউবিপিইবি) দু’ বছরের প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত প্রার্থীদেরই পরীক্ষায় বসার সুযোগ দিয়েছিল। তার সঙ্গে দেখা হয়েছিল উচ্চমাধ্যমিকে ৫০% বা তার বেশি নম্বর আছে কিনা।

উল্লেখ্য, বিজ্ঞপ্তি জারি করা হবে www.wbbpe.org , www.wbsed.gov.in এই ওয়েবসাইটগুলির মাধ্যমে। এই সাইটগুলির মাধ্যমেই টেটের জন্য অনলাইন আবেদন জানাতে হবে।

রেলের গ্রুপ ডি পরীক্ষার প্রশ্নোত্তর : পর্ব ২৫

প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালের টেট পরীক্ষার সাতটি প্রশ্নের উত্তর নিয়ে একটি গোলযোগ তৈরি হয়েছিল। সেই সমস্যার নিষ্পত্তি ঘটাতে প্রায় ৫০০ পরীক্ষার্থী দারস্থ হয়েছিলেন কলকাতা হাইকোর্টের। সেই প্রশ্নগুলির উত্তরের ঠিক ভুল যাচাই করার জন্য আদালত একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করেছিল। চলতি বছরের অক্টোবর মাসের প্রথম সপ্তাহে সেই বিষয়ে নির্দেশ জারি করে আদালত। বিচারপতি সমাপ্তি চট্টোপাধ্যায় বোর্ডকে নির্দেশ দিয়েছেন, ওই সাতটি প্রশ্নের ঠিক উত্তরদাতাদের পূর্ণমান দিতে হবে। আর সেই নম্বর যোগ করতে হবে তাদের মূল ফলাফলের সঙ্গে।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন